বিভাগ - সারাদেশ

পাইকগাছাসহ সুন্দরবন সংলগ্ন নদ-নদী থেকে বন্ধ হচ্ছে না পারশে পোনা আহরণ

প্রকাশিত

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ঃ পাইকগাছাসহ সুন্দরবন সংলগ্ন নদ-নদী থেকে বন্ধ হচ্ছে না পারশে পোনা আহরণ। সরকারি নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে শিবসা-কপোতাক্ষ সহ সুন্দরবন সংলগ্ন নদ-নদী থেকে অব্যাহত রয়েছে পারশে পোনা আহরণ। উপক‚লীয় অঞ্চলের নদ-নদী (প্রাকৃতিক উৎস) থেকে পোনা আহরণ বন্ধের নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়নে প্রশাসন ও থানা পুলিশ যৌথভাবে কঠোর অবস্থান নিলেও প্রশাসনের কোন ব্যবস্থাপনায় কাজে আসছে না। ইতোমধ্যে প্রশাসন ও থানা পুলিশের অভিযানে অসংখ্য নৌকা জব্দ করা হয়েছে। জরিমানা করা হয়েছে লক্ষাধিক টাকা। নদীতে অবমুক্ত করা হয়েছে বিপুল পরিমাণ পোনা। সর্বশেষ সোমবারও এলাকার নদ-নদীতে অভিযান চালিয়ে নৌকা সহ পোনা জব্দ করা হয়। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জুলিয়া সুকায়নার নির্দেশে জব্দকৃত ১০ লাখ পারশে পোনা নদীতে অবমুক্ত করা হয়। এভাবেই একাদিকে কর্তৃপক্ষ অভিযান অব্যাহত রয়েছে, অপরদিকে পোনা ব্যবসায়ীরা পোনা আহরণ ও ক্রয়-বিক্রয় অব্যাহত রেখেছে। এতে করে একদিকে প্রাকৃতিক উৎসে পোনা প্রাপ্তির পরিমাণ কমে আসছে। বিরূপ প্রভাব পড়ছে জীব বৈচিত্রের ওপর। এ ব্যাপারে ওসি এমদাদুল হক শেখ জানান, প্রতিনিয়ত অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। তারপরও বন্ধ হচ্ছে না পোনা আহরণ। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা পবিত্র কুমার দাস জানান, জরিমানা কিংবা নদীতে অবমুক্ত করে পোনা আহরণ বন্ধ করা যাচ্ছে না। এ জন্য আরো কঠোর ব্যবস্থাগ্রহণের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জুলিয়া সুকায়না জানান, ঘের অধ্যুষিত এলাকা হওয়ায় এখানে প্রচুর পারশে পোনার চাহিদা রয়েছে। শুনেছি কৃত্রিম উপায়ে পারশে মাছের পোনা উৎপাদনের প্রযুক্তি উদ্ভাবন হয়েছে। অত্র এলাকায় বাণিজ্যিকভাবে পারশে পোনা উৎপাদনের যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে। এধরণের সম্ভাবনা কাজে লাগানোর জন্য মৎস্য ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসা উচিত। তবে আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে এবং বৃহৎ স্বার্থের কথা বিবেচনা করে প্রাকৃতিক উৎস থেকে পোনা আহরণ বন্ধ করা উচিত। উপজেলা চেয়ারম্যান গাজী মোহাম্মদ আলী বলেন, কয়রা ও দাকোপ উপজেলা চেয়ারম্যান সহ আমরা জনপ্রতিনিধিরা অনেকেই বিষয়টি নিয়ে জেলা প্রশাসকের সাথে কথা বলেছি। আশা করছি পোনা আহরণ, ক্রয় ও বিক্রয় বন্ধে সবাই এগিয়ে আসবে।