বিভাগ - সারাদেশ

পাইকগাছায় সালাম গাজী খুনের আসামী হলেন প্রধান সাক্ষী : আলামত উদ্ধার

প্রকাশিত

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ঃ পাইকগাছায় ৩ দিনের ব্যবধানে মৎস্যজীবি সমিতির সভাপতি আব্দুস সালাম (৪৭) খুনের মোটিভ সহ আলামত উদ্ধার করেছে পুলিশ। মায়ের সাথে দীর্ঘদিনের পরকীয়ার কারনে আত্মমর্যাদা রক্ষার্থে আবুল হোসেন এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে পুলিশের কাছে জবানবন্দি দিয়েছে। তার দেয়া স্বীকারোক্তি মোতাবেক শনিবার বিকেলে তার বাড়ির সন্নিকটে মিনহাজ নদী থেকে খুনের কাজে ব্যবহৃত কুড়ালটি উদ্ধার করে পুলিশ। এদিকে আবুল হোসেনের মা পুর্ব গজালিয়ার আনিছ গাজীর স্ত্রী রনজিলাকেও পুলিশ থানা হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদ অব্যাহত রেখেছেন। এ ঘটনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আসাদুজ্জামান ওসি সহ সংশি¬ষ্টরা একাধিক বার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। সুত্র জানায়, পুর্ব গজালিয়ার মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিঃ এর সভাপতি আব্দুস সালাম গাজী ওই নারীর সাথে দীর্ঘদিন পরকিয়ায় আসক্ত ছিল, যা ছেলে আবুল হোসেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ঘটনার দিনগত বুধবার রাত ৯ টার দিকে সালাম গাজী রাতের খাবার খেয়ে মোবাইলে কথা বলতে-বলতে-বাড়ী-থেকে বের হয়ে রাস্তা দিয়ে নিজ চিংড়ি ঘেরের যাবার উদ্দেশ্যে মাত্র দেড়শো গজ দুরে পৌছালে আবুল হোসেন নতুন কুঁড়াল দিয়ে মাথায় উপুর্যপুরী ভাবে কুপিয়ে তাকে নির্মম ভাবে হত্যা করে। পরে কেহ যাতে বুঝতে না পারে তাৎক্ষনাত আবুল হোসেন মোবাইলে সালামের পরিবারকে জানায়। এ মোবাইলটি পুলিশ ধান ক্ষেত থেকে ও আবুল হোসেনের স্বীকারোক্তি মতে শনিবার বিকেলে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত কুড়ালটি মিনহাজ নদী থেকে উদ্ধার করে বলে ওসি এমদাদুল হক শেখ জানান। এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ৮/১০ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে।