বিভাগ - সারাদেশ

বাগেরহাটে খামারের পশু মরছে প্রতিনিয়ত

প্রকাশিত

বাগেরহাট সংবাদদাতা: বাগেরহাটে গরু খামারের নতুন উদ্যোক্তারা প্রানী সম্পদ কার্যালয়ের পক্ষ থেকে সুযোগ সুবিধা ও বিভিন্ন ধরনের সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন। এ ব্যাপারে খোদ জেলা প্রানী সম্পদ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসক বরাবর অভিযোগ করেছেন এক উদ্যোক্তা। এমনকি সহায়তার অভাবে নতুন উদ্যোক্তাদের খামারের পশু পর্যন্ত মারা গেলেও প্রানী সম্পদ কর্মকর্তাদের কাছ থেকে তেমন কোন সহায়তা পাওয়া যাচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে। বাগেরহাট সদর উপজেলার ফুলতলা গ্রামের শেখ আকবর রহমানের ছেলে শেখ তরিকুর রহমান এই অভিযোগ করেছেন। মঙ্গলবার বাগেরহাট জেলা প্রশাসক বরাবর এই অভিযোগ করা হয়।

শেখ তরিকুর রহমানের অভিযোগে জানা গেছে, তিনি প্রধান মন্ত্রীর নতুন উদ্যোক্তা সৃষ্টির ঘোষনায় উৎসাহিত হয়ে ক্ষুদ্র ঋণ নিয়ে ফুলতলা গ্রামের নিজ বাড়ীতে ছোট একটি গরুর খামার গড়ে তোলেন। যার নাম “মা ডেইরী ফার্ম দেন। মোট ১৬টি গরু নিয়ে খামার শুরু করেন। বিগত আনুমানিক ০৬ মাস পূর্বে বাগেরহাটের ডিএলও লুৎফর রহমান সাহেবকে একটি গরু অসুস্থ হওয়ার সাথে সাথে যোগাযোগ করেন তিনি। কিন্তু ডিএলও বিভিন্ন অযুহাত দেখিয়ে তার সহকারী শেখ শহিদুল ইসলামকে ফোনে সাজেসন করে ওষুধ দেওয়ান। ওই ঔষুধ প্রয়োগের কয়েক মিনিটের মধ্যে তার গরুটি মারা যায়।

পুনরায় সোমবার (২০ জানুয়ারী) সকালে আর একটি গরু বাচ্চা দিতে গিয়ে অসুস্থ হলে ডিএলও লুৎফর রহমানের সাথে মোবাইলের মাধ্যমে যোগাযোগ করেন। এ সময়ে তিনি নিজে না এসে ফোনে বলেন গরুর বদ হজম হয়েছে। এর প্রতিকার হিসেবে তিনি ঝঃধসধ ঠবঃ নামের একটি ওষুধ গাভীকে খাওয়াতে বলে। এতে গরুর কোন প্রকার উন্নতি হয়নি। পরে দুপুরে তাকে সরাসরি বললেও তিনি সেখানে না গিয়ে গরুর খোজ নিতে বলেন।

বিকালে আবার মোবাইলে কল করার পরও ওনার এক সহকারীকে পাঠান সেখানে। তিনি এসে মোবাইলে ডিএলও লুৎফর রহমান সাহেবের সাথে কথা বলে সেই অনুযায়ী ইনজেকশন প্রয়োগ করেন। এতে সাথে সাথে গরুটি মারা যায়। এভাবে তিনি জেলা প্রানী সম্পদ অফিসের কর্মকর্তাদের সহায়তা না পেয়ে উৎসাহ হারিয়ে ফেলছেন। এমনকি ডিএলও খামারে এসে গরু পরিদর্শনের ফি হিসেবে প্রতিবার এক হাজার টাকা করে দেন বলে অভিযোগে উল্লেখ করেন।

এ ব্যাপারে বাগেরহাট প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা (ডিএলও) লুৎফর রহমান জানান, তিনি প্রতিনিয়ত সরকারী কাজে ব্যস্ত থাকেন। তাই তার পক্ষে সকল খামারীর দুঃখ দেখা সম্ভব নয়।