বিভাগ - সারাদেশ

বাগেরহাটে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মালামাল চুরি: মালামাল উদ্ধার হলেও মামলা না হওয়ায় এলাকায় উত্তেজনা

প্রকাশিত

হেদায়েত হোসাইন,বাগেরহাট: বাগেরহাটে ডুমুরিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মালামাল চুরি হওয়ার প্রায় দুই সপ্তাহ অতিক্রম হলেও মামলা না এলাকায় সাধারন মানুষের মাঝে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। মামলা না হওয়ায় প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষককে নিয়ে বিভিন্ন স্থানে চলছে আলোচনা সমালোচনা।

এলাকার একাধীক ব্যক্তি অভিযোগ করে বলেন, স্কুলের মালামাল স্থানীয় ডুমুরিয়া গ্রামের কিশোর চৌধুরী, শেখর চৌধুরী , অনন্ত চৌধুরী ও রশো চৌধুরীর নিজ বাড়িতে প্রতিষ্ঠানের চুরি হওয়া ইট,রড,টিন,জানালা,দরজাসহ বিভিন্ন মালামাল উদ্ধার করে। প্রায় দুই সপ্তাহ পার হলেও প্রধান শিক্ষক কোন অদৃশ্য ক্ষমতায় বলে এখনও মামলা করেন নি। যাদের বাড়িতে চুরিকৃত মালামাল পাওয়া গেছে তাদের বিরুদ্ধে এলাকায় চুরি,ডাকাতি, চাদাবাজি,ঘের দখল,জমিদখলসহ একাধিক অভিযোগ রয়েছে। প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষককে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানান এলাকাবাসী।

এদিকে অত্র প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য সরদার মোজাফ্ফর হোসেন,মোঃ আজমল ,প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক লুহো ইসলাম বাবু,বিদ্যেৎসাহী সদস্য জুলফিকার আলী (জুলহাস) সহ একাধিক সদস্য অভিযোগ করে বলেন,প্রতিষ্ঠানের মালামাল চুরি হওয়ার পর জরুরী মিটিংয়ে মালামাল চুরির জন্য মামলা দায়েরের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। পরের দিন প্রধান শিক্ষক রাজেন্দ্রনাথ মন্ডল চিতলমারী থানায় এজাহার দায়ের করেন। পরবর্তীতে প্রধান শিক্ষক এজাহারের কপি তুলে আনেন। প্রধান শিক্ষককে মামলা করার জন্য অনুরোধ করা হলেও প্রধান শিক্ষক কোন কর্নপাত করছেন না । তারা অভিযোগ করে আরো বলেন যারা এ ধরনের চুরির সাথে সংশ্লিষ্ট তাদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে পূর্বে বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িত। প্রধান শিক্ষক কোন স্বার্থে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করছেন না তা আমাদের বোধগম্য নয়। তারা উক্ত ঘটনার সঠিক তদন্ত করে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানান।

এ বিষয়ে অত্র প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সরদার টিটো বলেন, মালামাল চুরির পরই আমি প্রশাসনের বিভিন্ন স্থানে বিষয়টি অবহিত করি ও স্কুলে জরুরী মিটিংয়ের আয়োজন করি। মিটিংয়ে যাদের বাড়িতে চুরিকৃত মালামাল রয়েছে তাদেরকে আসামী করে প্রধান শিক্ষককের উপর মামলা করার সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়। প্রধান শিক্ষক মামলা না করার সঠিক কোন ব্যখ্যা আমি পাই নাই। তিনি আসামীদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের আহবান জানান।

এ বিষয়ে অত্র প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক রাজেন্দ্রনাথ মন্ডল বলেন,স্কুলের বিভিন্ন মালামাল চুরি হয়েছে। বিষয়টি স্থানীয় ভাবে মিমাংশার চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানান।