বিভাগ - সারাদেশ

বাঙ্গরায় সম্পত্তি লিখে নিতে শতবর্ষী পিতাকে লুকিয়ে রাখার অভিযোগ

প্রকাশিত

সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী নিজস্ব প্রতিবেদক কুমিল্লা : সম্পত্তি লিখে নিতে পুত্রদের বিরুদ্ধে শতবর্ষী পিতাকে লুকিয়ে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানাধীন শ্রীকাইল ইউনিয়নের রোয়াচালা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ করার ৬দিন অতিবাহিত হলেও তার কোন সন্ধান না পাওয়ায় স্বজনরা আতংকে রয়েছেন। বিষয়টি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে লোকমুখে নানা গুঞ্জন চলছে। মামলার অভিযোগ সূত্রে ও স্বজণদের সাথে কথা বলে জানা যায়, রোয়াচালা গ্রামের নুরুল ইসলাম ভুইয়ার ৭ ছেলে। ছেলেদের নামে জমি লিখে না দেওয়ায় দীর্ঘদিন যাবত পিতা ও পুত্রদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। উক্ত বিরোধের জের ধরে গত ২৫ নভেম্বর কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে নুরুল ইসলাম ভুইয়াকে তার ৪ ছেলে মারধর করে। বিষয়টি এলাকার লোকজনকে একাধিকবার জানিয়ে কোন সুবিচার পায়নি নুরুল ইসলাম ভুইয়া। তাই তিনি নিরুপায় হয়ে গত ২৭ নভেম্বর কুমিল্লার ৮নং সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ছেলে জাকির মিয়া, রঞ্জু মিয়া, কালা মিয়া ও আলমগীর হোসেনসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে একটি পিটিশন মামলা করেন (যার নং সি-আর ৪৫২/১৯)। আদালতের বিজ্ঞ বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে আসামীদের বিরুদ্ধে সমন জারি করেন। এ খবর পেয়ে অভিযুক্ত ছেলেরা তার পিতার সাথে সমঝোতায় যাওয়ার জন্য কৌশলে গত ৪ ডিসেম্বর বুধবার গভীর রাতে নুরুল ইসলাম ভুইয়াকে পাশের হোমনা উপজেলার মাইজচর গ্রামের মেয়ের বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে মাইজচরসহ তার অন্যান্য আত্মীয় স্বজনদের বাড়িতে খোঁজাখুঁজি করেও তার কোন সন্ধান পায়নি। তাই শতবর্ষী নানার সন্ধানে পরদিন ৫ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে নাতি জয়নাল আবেদীন বাদী হয়ে বাঙ্গরা বাজার থানায় ৩ জনের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ করে। কিন্তুু এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পুলিশ শতবর্ষী নুরুল ইসলাম ভুইয়ার কোন সন্ধান দিতে পারেনি। এ দিকে অভিযোগকারী জয়নাল আবেদীন জানান, মামলার বিবাদীগণ আমার নানার সম্পত্তি লিখে নিতে কৌশলে অজ্ঞাত স্থানে তাকে লুকিয়ে রেখেছেন। অপর দিকে অভিযুক্ত জাকির মিয়ার মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও রিসিভ না করায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। বাঙ্গরা বাজার থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, বিষয়টি আমি গভীর ভাবে খতিয়ে দেখছি।