বিভাগ - শিক্ষা

বিশ্ব যুব দক্ষতা দিবস উপলক্ষে অনলাইন আন্তঃ পলিটেকনিক প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা

প্রকাশিত

আগামী ১৫ জুলাই বিশ্ব যুব দক্ষতা দিবস (ডাব্লিউওয়াইএসডি)। জাতিসংঘ ঘোষিত এই দিবসের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে বিশ্বের তরুণদের বিভিন্ন দক্ষতায় দক্ষ হয়ে ওঠার জন্য আহবান জানানো এবং ভবিষ্যতের বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় দক্ষ যুবকদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা তুলে ধরা। এ বছর কোভিড–১৯ মহামারীর কারনে বিশ্ব যুব দক্ষতা দিবসলকডাউনের মধ্যেই পালিত হচ্ছে।

চলমান পরিস্থিতিরকারনে বিশ্বব্যাপী দক্ষতা বিকাশের ধারাবাহিকতা হুমকির সম্মুখীন হয়েছে এবং কারিগরি এবং বৃত্তিমূলক শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ (টিভিইটি) প্রতিষ্ঠানগুলো বিশ্বব্যাপী বন্ধ আছে। ইউনেস্কোর হিসাবে বিশ্বের প্রায় ৭০ শতাংশ শিক্ষার্থী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেতে পারছে না। এই মাহামারী শেষ হলেও তরুণদের বড় অংশ দ্রুততার সঙ্গে কাজে যোগ দিতে পারবে না কারণ বিশ্বব্যাপী কাজের সংকট বাড়বে। করোনার প্রভাবে বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বে অনেকেই নতুন করে কর্মহীন হয়ে পড়ছেন। ২০১৭ সাল থেকে কর্মহীন তরুণের সংখ্যা বিশ্বজুড়ে বেড়েই চলেছে। বাংলাদেশের শ্রমশক্তি জরিপ ২০১৬-১৭ অনুসারে দেশে প্রতি চারজন তরুণের একজন (২৭.৩৯%) কাজ, শিক্ষা বা প্রশিক্ষণের সঙ্গে যুক্ত নেই। প্রতিবছর যে ২২ লক্ষ ছেলে-মেয়ে কর্মবাজারে যুক্ত হয় তাদের মধ্যে যুবকদের সংখ্যা বেশি এবং এদের বড় অংশেরই তেমন কোন দক্ষতা নেই। একই বছরে ৩৯ লক্ষ কর্ম সৃষ্টির লক্ষ্য থাকলেও এর অর্ধেক (১৭ লক্ষ ৮০ হাজর) কর্ম সৃষ্টি হয়েছে। অথচ দেশের ৬০% জনগোষ্ঠী তরুণ এবং এদের তিন কোটি ২৪ লক্ষ কর্মবাজারের সবচেয়ে বড় শক্তি।বিশ্বব্যাপী তরুণদের এই নতুন ক্রান্তিকালকে সামনে রেখে এবারের বিশ্ব যুব দক্ষতা দিবসের প্রতিপাদ্য ঠিক করা হয়েছে “মহামারী ও পরবর্তী কালে নিজেদের ফিরে পাওয়ার জন্য তারুণ্যের দক্ষতা”।এইপ্রতিপাদ্যে বিশ্বজুড়ে এই দিবস পালনের নানা আয়োজনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

দেশে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) বাংলাদেশ কার্যালয়ের আওতায় স্কিলস-২১ প্রকল্পের উদ্যোগে বেশ কিছু কার্যক্রমের উদ্যোগ নিয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন) এবং এনাবিলিং সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোলস অফ বাংলাদেশ ফর ২০৩০ (ইএসডিজি ফর বিডি) প্রকল্প যৌথভাবে বিশ্ব যুব দক্ষতা দিবসউপলক্ষে অনলাইনআন্তঃ পলিটেকনিক প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে।এ প্রতিযোগিতার পাশাপাশি টিভিইটিসাফল্যের গল্পের সেশন, টিভিইটি গ্র্যাজুয়েটদের জন্য বৈশ্বিক সুযোগের উপরবিশেষজ্ঞদের নিয়ে অনলাইন ওয়েবিনার এবং টিভিইটিশিক্ষার্থীদের নিয়ে বুটক্যাম্পের আয়োজনও থাকছে। সারা দেশের কারিগরী স্কুল ও কলেজ, কারিগরি কলেজ এবং পলিটেকনিক ইনস্টটিউটেরশিক্ষার্থীদের জন্য আয়োজিত হয়েছে এইআন্তঃ পলিটেকনিক প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা। এ প্রতিযোগিতায়অংশ নিতে হলে প্রথমেই https://bit.ly/ippc2020লিঙ্ক এ গিয়ে নিবন্ধন করতে হবে। আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে প্রথম ২০০ জন শিক্ষার্থীকে এই নিবন্ধনের সুযোগ দেয়া হবে। আগামী ১১ জুলাই তারিখে এ প্রতিযোগিতার মক প্রতিযোগিতা এবং ১৪ জুলাই তারিখে জাতীয় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। জাতীয় প্রতিযোগিতায় সেরা তিনজন প্রতিযোগীকে মোট ১৫,০০০ টাকা পুরষ্কার দেয়া হবে। প্রথম পুরষ্কার হিসেবে ৭,০০০ টাকা, দ্বিতীয় পুরস্কার হিসেবে ৫,০০০ টাকা এবং তৃতীয় পুরস্কার হিসেবে ৩,০০০ টাকা দেয়া হবে।এর পাশাপাশি শুধুমাত্র টিভিইটি মেয়েদেরকে নিয়ে ৩ দিনের একটি অনলাইন বুটক্যাম্পের আয়োজন করা হবে বলে জানান এ আয়োজনের আয়োজকরা। বুটক্যাম্পেও আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে প্রথম ৩০ জনকে এই সুযোগ দেয়া হবে। খুব শীঘ্রই এই বুটক্যাম্পে অংশগ্রহণের জন্য নিবন্ধন প্রক্রিয়া শুরু হবে।