ভারতের বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইন মানবতার বিপর্যয় ডেকে আনবে

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ: শুক্রবার সকাল ১১ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ভারতের বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইন মানবতার বিপর্যয় হিসেবে চিহ্নিত করে উক্ত আইন বাতিলের দাবিতে গায়ে কালো কাপড় পরিহিত এবং কালো পতাকা হাতে নিয়ে প্রতিবাদ জানান হানিফ বাংলাদেশী।

কর্মসূচিতে হানিফ বাংলাদেশি বলেন, ভারত বাংলাদেশের দীর্ঘদিনের বন্ধু দেশ। ১৯৭১ সালে ভারতের সহযোগিতায় আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছি। কিছুদিন আগে আসামের এনআরসি, এখন সিটিজেনশিপ এমেন্ডমেন্ট বিল (সিএবি) ২০১৯ রাজ্যসভা ও বিধানসভায় পাশ হওয়ায় ভারতের জনগণ ও বাংলাদেশের জনগণের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। ভারতের আতঙ্কিত জনগণ বাংলাদেশে প্রবেশ করছে। এতে বাংলাদেশের মানুষ আতঙ্কিত এবং উদ্বিগ্ন। নতুন নাগরিকত্ব আইনের যারা বাদ পড়বে তাদেরকে প্রাথমিক ভাবে ডিটেনশন ক্যাম্পে রাখা হবে। বিজেপি’র নেতারা বলছেন পর্যায়ক্রমে তাদের বাংলাদেশসহ পার্শ্ববর্তী দেশগুলোতে পাঠানো হবে। যা উপমহাদেশে মানবিক বিপর্যয় সৃষ্টি করবে।

তিনি বলেন, নতুন আইনের সংখ্যলঘুদের নাগরিকত্ব প্রদানের যে বিধান বিজেপি সরকার করছে তা বাংলাদেশসহ পাশ্ববর্তী দেশগুলোর সংখ্যালঘুদের দেশ ত্যাগে উৎসাহিত করতে পারে। ফলে নতুন সংকট সৃষ্টি হতে পারে। ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশ সংখ্যালঘুদের নির্যাতনের যে অবাস্তব চিত্র তুলে ধরেছেন আমরা তা প্রত্যাখ্যান করছি। বাংলাদেশ পৃথিবীতে ধর্মীয় সহাবস্থানের এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। আমরা ধর্মীয় সম্প্রীতি বজায় রাখতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।