ভারত বাংলাদেশকে ‘মুক্তি’ দিতে পারত যেভাবে

প্রকাশিত

খেলাধুলা ডেস্ক: মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে কাল ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ১০ উইকেটে হেরেছে ভারত। এ ম্যাচে ভারত আর কিছু রান করতে পারলে বাংলাদেশ অনাকাঙ্ক্ষিত এক রেকর্ডের হাত থেকে মুক্তি পেতে পারত।

ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে কাল অস্ট্রেলিয়ার কাছে ভারত তুলোধুনা হওয়ার পর বাংলাদেশ ক্রিকেটের সমর্থকেরা খানিকটা আক্ষেপ করতেই পারেন। ইশ, আর মাত্র কয়েকটা রান! অঙ্কের হিসেবে অন্তত ২৪—নিজেদের স্কোরবোর্ডে তোলা ২৫৫ রানের সঙ্গে বিরাট কোহলিরা এ কয়টি রান যোগ করতে পারলে বাংলাদেশের নামের পাশে ‘অনাকাঙ্ক্ষিত’ একটি রেকর্ড হয়তো থাকত না।

হয়তো—কথাটা রাখতে হচ্ছে ক্রিকেট অনিশ্চয়তার খেলা বলে। কখন কী ঘটবে কিছুই বলা যায় না। তবে কাল অস্ট্রেলীয় দলের দুই ওপেনারের ব্যাটিং দেখে থাকলে মনে হতেই পারে, ভারত ৩০০ রান করলেও ডেভিড ওয়ার্নার-অ্যারন ফিঞ্চ মিলে তাড়া করে দিতেন! ভারতের এ (২৫৫) রান তাড়া করে অস্ট্রেলিয়ান জিতেছে ১০ উইকেটে। সেঞ্চুরি তুলে নেন ওয়ার্নার-ফিঞ্চ। দুজনের ব্যাটিং দেখে মনেই হয়নি যশপ্রীত বুমরা-কুলদ্বীপ যাদবদের মতো ডাকসাইটে বোলাররা তাদের আউট করতে পারবেন। ঠিক এ কারণেই উঠে আসছে বাংলাদেশের সেই অনাকাঙ্ক্ষিত রেকর্ডের প্রসঙ্গ।

ওয়ানডে রান তাড়া করতে নেমে ১০ উইকেটে জয়ের নজির কম নেই। কিন্তু ১০ উইকেটে জয়ের ম্যাচে সর্বোচ্চ রান তাড়ার রেকর্ড কোনটি? এ প্রশ্নের জবাবে উঠে আসে বাংলাদেশের নাম। ২০১৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে গিয়েছিল বাংলাদেশ। সেখানে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে আগে ব্যাট করে ৭ উইকেটে ২৭৮ রান তুলেছিল বাংলাদেশ। হাশিম আমলা ও কুইন্টন ডি ককের জোড়া সেঞ্চুরিতে দ. আফ্রিকা এ রান তাড়া করে জিতেছিল ১০ উইকেটের ব্যবধানে। ওয়ানডেতে ১০ উইকেটে জয়ের ম্যাচে এটাই সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড। কালকের হারের পর এ তালিকার দুইয়ে উঠে এসেছে ভারত।

দেশের ক্রিকেটের কল্পনাবিলাসী সমর্থকেরা তাই ভাবতে পারেন, কাল ভারত যদি বাংলাদেশের সংগ্রহকে ছাপিয়ে যেত তাহলে রেকর্ডটির পাশে দেশের নামটা থাকত না। হ্যাঁ, ওয়ার্নার-ফিঞ্চ জুটি হয়তো তার আগেই আউট হতে পারতেন, কিন্তু সম্ভাব্যতার হিসেব কষলে অন্তত তাঁদের জমাট ব্যাটিং দেখে এতটুকু আশা তো করাই যায়! ১১২ বলে ১২৮ রানে অপরাজিত ছিলেন ওয়ার্নার। অন্য প্রান্তে ১১৪ বলে ১১০ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন অধিনায়ক ফিঞ্চ। ওয়ানডেতে অস্ট্রেলিয়ার এটি পঞ্চমবারের মতো ১০ উইকেটের ব্যবধানে জয়। এর আগে তারা সবশেষ ১০ উইকেটে জিতেছিল ২০০৭ বিশ্বকাপে, প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ!

ভারতের বিপক্ষে কাল যেকোনো উইকেটে সর্বোচ্চ রানের জুটি (২৫৮*) গড়েছেন ওয়ার্নার-ফিঞ্চ। তবে রান তাড়ায় সব মিলিয়ে এটি তৃতীয় সর্বোচ্চ রানের জুটি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের জুটিতে জড়িয়ে বাংলাদেশের নাম—ওই যে দুই বছর আগের সে ম্যাচে আমলা-কক জুটির ২৮২*। ২০০৬ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সর্বোচ্চ ২৮৬ রানের জুটি গড়েছিলেন শ্রীলঙ্কার সনাথ জয়াসুরিয়া ও উপুল থারাঙ্গা।

error0