মদের বার বন্ধ না করলে কঠোর আন্দোলন-ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সভাপতি মুফতি মাসুম বিল্লাহ বলেন, চাষাড়াস্থ নূর মসজিদের পিছনে প্যারাডাইজ ভবনে ৯-১১ নম্বর ফ্লোরে ব্লু পেয়ার রেস্টুরেন্ট নাম দিয়ে মদের বার খোলা হয়েছে। এটা বড়ই দুঃখজনক। কোন সুস্থ বিবেকসম্পন্ন মানুষ মদ পান করতে পারে না। কারণ মদ মহান আল্লাহ তা’আলা হারাম ঘোষণা করেছেন। এর দ্বারা মানুষের উপকার তো দূরের কথা ক্ষতিই বেশি। তাছাড়াও মদ্যপ ব্যক্তি চেতনা হারিয়ে বহু অনৈতিক কাজে লিপ্ত হয়। নারায়ণগঞ্জে প্রতিষ্ঠিত এই মদের বার যুবসমাজ সহ সকল শ্রেণির মানুষকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দেয়ার চক্রান্ত বৈ কিছু নয়। অবৈধভাবে গড়ে ওঠা নারায়ণগঞ্জে মদের বার বন্ধ না করা হলে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

আজ ২০ জানুয়ারি ২০২০ইং সোমবার বিকাল ৪টায় প্রেস ক্লাব চত্বরে আয়োজিত মানববন্ধনে সভাপতির বক্তব্যে তিনি উপর্যুক্ত কথা বলেন। সেক্রেটারি সুলতান মাহমুদের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ মহানগরের জয়েন্ট সেক্রেটারি ডা. মুহা. সাইফুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মাও. শামসুল আলম, অর্থ সম্পাদক মুহা. আমির হোসেন, ইসলামী যুব আন্দোলন নগর সহ-সভাপতি, ডা. মিজানুর রহমান, জাতীয় শিক্ষক ফোরাম নগর সদস্য সচিব মাও. মুহা. আ. হান্নান, ইশা ছাত্র আন্দোলন নগর সভাপতি এম. শফিকুল ইসলাম, শ্রমিক আন্দোলন নগর সভাপতি আলহাজ¦ শেখ হাসান আলী শহর শাখার সহ-সভাপতি আব্দুস সোবহান, সেক্রেটারি আব্দুর রহমান রোমান সহ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সভাপতি আরও বলেন, বার এর লাইসেন্স প্রসঙ্গে সরকারি বিধিতে স্পষ্ট করেই লেখা আছে- বার পরিচালনার বিষয়ে স্থানীয় ওয়ার্ড কমিশনারের অনাপত্তি, সংসদ সদস্যের অনাপত্তি, জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের মতামত ইত্যাদি প্রয়োজন। এমনকি বার-এর আশেপাশে কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ধর্মীয় উপাসনালয় থাকবে না। অথচ ব্লু পেয়ার (মদের বার) এর পাশেই শহরের কেন্দ্রীয় মসজিদ হিসেবে পরিচিতি নূর মসজিদ, প্রেস ক্লাব ও আশেপাশে বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

error0