মন্ত্রীদের ব্যর্থতার কারণেই চালের বাজারে অস্থিরতা দেখা দিয়েছে: ন্যাপ

প্রকাশিত

????????????????????????????????????

এওয়ান নিউজ: চালের বাজারে হঠাৎ অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধিতে গভীর উদ্বেগ ও উৎকন্ঠা প্রকাশ করে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ মন্তব্য করেছে সরকারের মন্ত্রী-এমপিদের ব্যর্থতার কারণেই দেশে চালের বাজারে অস্থিরতা দেখা দিয়েছে।রবিবার (২৪ নভেম্বর) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে পার্টির চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া এসব কথা বলেন।

তারা বলেন, সরকারের অযোগ্য মন্ত্রীদের অতিকথন ও অযোগ্যতার কারণেই সকল ক্ষেত্রে বিপর্যয় দেখা দিয়েছে। পেয়াজ ও লবনের পর এখন তারা চালের বাজারও নিয়ন্ত্রনে চূড়ান্ত ব্যর্থতার পরিচয় দিচ্ছে। মন্ত্রী-এমপিরা দায়িত্ব পালনে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে।

নেতৃদ্বয় বলেন, দেশে পর্যাপ্ত পরিমাণ চালের মজুত থাকার পরও কি করে মূল্য বৃদ্ধি পায়। সরকারের মন্ত্রীদের অযোগ্যতা বঝতে পেরেই সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীরা নানাভাবে এবং কোনো বাজারে চালের চাহিদা বেশি সেখানে সংকট তৈরি করে দাম বাড়িয়ে দিচ্ছে। সরকার ব্যবসায়ী ও মিল মালিকদের থেকে ৩০-৩২ টাকায় চাল কিনতে চেয়েছিল। ব্যবসায়ীরা তা দেয়নি। ফলে সরকার এই প্রকল্পেও ব্যর্থ হয়েছে।

তারা বলেন, চালের দাম কেন বাড়ছে, কেন এই সংকট? এই ঘটনার গভীরে না যাওয়া পর্যন্ত এই সংকট মোকাবিলা সম্ভব নয়। বাংলাদেশে পেয়াজের দাম নিয়ে বাজারে হুলস্থুল কান্ড চলার মধ্যেই সব ধরণের চালের দামের ঊর্ধ্বগতির লক্ষণ ভালো নয়। আড়তদার, মিল মালিক কিংবা খুচরো বিক্রেতা- সবাই একবাক্যে বলছেন এ সময়ে এভাবে চালের দাম বাডার যৌক্তিক কোনো কারণ নেই।

নেতৃদ্বয় আরো বলেন, এ বিষয়টি স্পষ্ট যে, সরকারের গুদামে যথেষ্ট চাল মজুত না থাকার কারণেই এ পরিস্থিতির তৈরি হয়েছে। নানা অজুহাত তুলে নিত্যপণ্যসহ চালের বাজার অস্থিতিশীল করে তোলা হচ্ছে। ইতিমধ্যে চালের বাজার পুরোপুরি লাগামহীন হয়ে পড়ছে দেখা দিয়েছে অস্থিরতা। ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। অতীতের তিক্ত অভিজ্ঞতা বিবেচনায় বাজার আরো অস্থির হয়ে ওঠার শঙ্কায় তারা।

তারা বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে বারবার দেশে খাদ্যের কোনো সংকট নেই দাবী করা হলেও বিভিন্ন অজুহাতে চালের বাজার লাগামহীন করে তোলা কেন? একশ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী যারা সুযোগ পেলেই বাজারকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা চালায়, এটা তাদের কারসাজি। তাদের বিরুদ্ধে সরকার কেন ব্যবস্থা গ্রহন করতে ব্যর্থ হচ্ছে ?