মহামারি থেকে পালিয়ে গেলেই মৃত্যু!

প্রকাশিত

সেলিম হক:
হযরত মুসা (আঃ) আমলে একবার মহামারী প্লেগ রোগের আর্বিভাব হয়েছিলো। রোগটি মহামারী আতঙ্ক ছড়িয়ে ঐ সময় প্রচুর লোক মারা যান। তখন সে এলাকা থেকে ৭০জনের একটি দল মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচার জন্য এলাকা ত্যাগ করেন। বিধাতার কি অমোঘ নিয়ম। কিছুদুর যাওয়ার পর পাহাড়ের পাদদেশে তাদের আল্লাহ বজ্রপাত দিয়ে মৃত্যু ঘটায়।
এ ঘটনা কুরআনে লিপিবদ্ধ রয়েছে। পরে হযরত মুসা (আঃ) তাদের জন্য দোয়া করে জীবিত করেন। এটার শিক্ষা আল্লাহ চাইলে তোমাকে আমাকে সব জায়গা থেকে জান কবজ করতে পারবে। পালিয়ে লাভ নেই। মহামারি বা ভয়াবহ রোগের সময় এলাকা ছেড়ে যেও না। এটা হাদিসে এসেছে। আবার কেউ প্রবেশ করিও না।
চায়না এ ফর্মুলাটা ব্যবহার করে সফল। পুরা উহান কে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছেন অন্য শহর থেকে। কেউ আহারে মরিনি। সামরিক খাদ্যসংকট ছিলো। কিন্তু সফল তাঁরা বীরের বেশে ডাক্তার নার্স উহান শহর ত্যাগ করলেন। রাষ্ট্রীয় বাহিনী তাদের সম্মান জানান।
প্রবাসীরা আমাদের ভাই। তাঁরা এখন কেন দেশে আসে এ মহামারিতে। তাঁরা যেখানে আছে সেখানে উত্তম। মরলে শহীদের মযার্দা। মহামারি মানে যুদ্ধ। যুদ্ধে থেকে পলায়ন মানেই মুনাফেক। আল্লাহ নবীর কথা মতো। রাসুল (সঃ) কথা না শুনলে বিপদ। আজ তাদের আপনজন বিপদে।
প্রসঙ্গক্রমে বলছি, গত রমজানে একটা মদীনা শরীফে বাস্তব গল্পের কথা বলি। জোহরের নামাযের পর হোটেলের লবিতে আমাদের ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধূরী জাবেদ এর সাথে ঢাকা ব্যাংকের চেয়ারম্যান আলোচনা করছেন। তার নাম মনে নেই এই মুহুর্তে। তার এক বায়রা আমেরিকা থাকে। সে পরিবার লোকদের বলেছে সে জীবনে কখনও বাংলাদেশ যাবে না।
সেটা আবার একটি দেশ নাকি তুচ্চ তাচ্ছিল্য। ঘটনাক্রমে তিনি একবার বাংলাদেশে আসেন। চট্টগ্রাম নিউ মার্কেটের সামনে গাড়ি দূর্ঘটনার শিকার হয়ে মারা যান। জীবনে বাংলাদেশে এসেছে ওই দিন কিন্তু আর ফিরে যেতে পারিনি আমেরিকা। কারণ আল্লাহ চাননি হয়তো।
এ বিপদে আমরা যেখানে পালায় না কেন! মৃত্যু কপালে থাকলে রেহাই নেই। আজ ধনীর টাকা আছে চাইলে আমেরিকা বা সিঙ্গাপুর যেতে পারবেন না। সবাই একই কাতারে। দেশের কথা চিন্তা করেন। আজ সবাই আতঙ্কিত। নবেল করোনা ভাইরাস। এক মহামারী। অথচ যারা চিকিৎসা করতে বিদেশে ছুটতো তাদের কি হবে?
শিক্ষানীয় বিষয়; ধনীরা দেশে বিনিয়োগ করো চিকিৎসা খাতে। গড়ে তোল সিঙ্গাপুর বা ব্যাংকের মতো হাসপাতাল। কাজে লাগবে সবার। তোমার ও আমার। দেশের মানুষের।

লেখক: সাংবাদিক ও রাজনীতিবিদ সেলিম হক
চট্টগ্রাম কর্ণফুলী।