মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাতেই কর্মহীন ও অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছি: মাইনুল ইসলাম পলাশ

প্রকাশিত

মোহাম্মদপুর থানার ৩৩ নং ওয়ার্ডের প্রতিবন্ধী, কর্মহীন, অসহায় ও মাদ্রাসার ছাত্র ছাত্রীদের জন্য ঈদের উপহার

এ ওয়ান নিউজ: ‘ করোনা পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুসারে কর্মহীন অসহায় ও দুস্থ মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনা করেছি। একই সাথে দলের কর্মীদের খোঁজখবর নিচ্ছি এবং তৃণমূল মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছি এবং পাশাপাশি বিত্তশালীদের এ কাজে উদ্বুদ্ধ করছি বলে জানান আওয়ামী লীগ নেতা মাইনুল ইসলাম পলাশ।

আজ বৃহস্পতিবার পবিত্র শবে কদরের দিনে প্রতিবন্ধী, কর্মহীন অসহায় ও মাদ্রাসার ছোট ছোট ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে ঈদের উপহার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, সমাজসেবক ও মোহাম্মদপুর থানার ৩৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধাণ সম্পাদক মাইনুল ইসলাম পলাশ এসব কথা বলেন ।

তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে, অসহায় কমহীন মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত রেখেছে সরকার। এ পর্যন্ত এক কোটির বেশি পরিবার তথা পৌনে ৫ কোটি মানুষের মাঝে সরকারি সহায়তা পৌঁছে গেছে।’ ৬৪ জেলায় ১ লাখ ৫৩ হাজার মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ ও বিতরণ করা হয়েছে। ৮৫ কোটি টাকা নগদ সহায়তা দেয়া হয়েছে। ১৭ কোটি ৫৪ লাখ টাকার শিশু খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়েছে। ১ কোটি মানুষকে রেশনের আওতায় আনাসহ, ৫০ লাখ মানুষকে ঈদের আগে নগদ সহায়তা দেয়া হয়েছে।

মাইনুল ইসলাম পলাশ বলেন, কিন্তু সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে একটি স্বার্থান্বেষী জাতীয় ও আন্তর্জাতিক মহল আমাদের দলের বিরুদ্ধে ও সরকারের বিরুদ্ধে বিভ্রান্তি সৃস্টির অপতৎপরতায় লিপ্ত রয়েছে। তারা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে টুইস্ট করে কাল্পনিক ও উদ্দেশ্যমূলক অপপ্রচার তথা গুজব চালাচ্ছে। তবে নিশ্চয়ই এ বিষয়ে আমাদের অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে।

তিনি আরো বলেন, আমি আরো জানতে চাই, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ইতিমধ্যে ১ লাখ কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন। এছাড়াও ১ কোটি মানুষের মাঝে রেশন কার্ড চালু করা হয়েছে এবং ৫০ লাখ মানুষের মাঝে নগদ সহায়তা কর্মসূচি চালু করা হয়েছে। ঈদকে সামনে রেখে এসব উদ্যোগ গ্রামীণ অর্থনীতিতে ইতিবাচক প্রভাব ফেলছে।

পলাশ বলেন, এই মহাদুর্যোগ সকলের ঐক্যবদ্ধ চেষ্টাই পারে প্রকৃত সমাধান দিতে, ইনশাআল্লাহ আমরা সকল ষড়যন্ত্র ভেদ করে সামনে এগিয়ে যাব দেশকে সুখী সমৃদ্ধশালী একটি উন্নয়নশীল রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা করব।

উল্লেখ্য, ঈদ উপহার সামগ্রী তে ছিল চাল, ডাল, আলু, প্রিয়াজ, রসুন, সাবান, মাস্ক, বালতি এবং রমাদানের শুভেচ্ছা আইটেম সহ ১৪ প্রকার আইটেম সামগ্রী সহায়তা প্রদান করেন।