মেহেরপুরে পর্যটনকেন্দ্র-বিনোদন পার্কগুলো জনশূন্যে

প্রকাশিত

মোঃ ইসমাইল হোসেন, জেলা প্রতিনিধি, মেহেরপুর: আজ ২৬ মে মঙ্গলবার সকালে দেখা যায়- মেহেরপুরে পর্যটনকেন্দ্র ও বিনোদন পার্কগুলো জনশূন্য হয়ে পড়েছে।

বিশ্ব মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে প্রতিবারের ন্যায় এবার ঈদে পর্যটন কেন্দ্র মেহেরপুর ঐতিহাসিক মুজিবনগর বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী রাজধানী, মুজিবনগর অন্যনা পার্ক, ইব্রাহীমপুর ডিসি ইকো পার্ক, মেহেরপুরে সৈন্দর্য্য মন্ডিত পৌর ইদগাহ, মেহেরপুর পৌরসভা, ভাটপাড়া ডিসি ইকো পার্ক এবং বৃটিশ আমলে ইংরেজরা ১৯৭৮ সালে ক্যারল ব্লুম নামক এক ইংরেজ ব্যক্তি মেহেরপুরের আমঝুপি কাজলা নদীর তীরে প্রায় ৩ শ’ বিঘা জমির উপর নীলকুঠি স্থাপন করেন। নীল চাষ অত্যাধিক লাভজনক হওয়ায় ১৭৯৬ সালে নীল চাষ শুরু হয়। এখানে অনেক স্মৃতি রয়েছে।

উল্লেখ্য এখানেই রবার্ট ক্লাইভের সঙ্গে মীরজাফর ও ষড়যন্ত্রীদের পলাশী প্রান্তরের যুদ্ধে পরাজিত হওয়ার নিল নকশার শেষ বৈঠক হয়েছিল। তার ফলে শুধু নবাব সিরাজউদৌলার ভাগ্য বিপর্যয় ঘটেনি, বাঙালী হারিয়েছিল তার স্বাধীনতা। কলঙ্কময় স্মৃতি নিয়ে থাকা আমঝুপি নীলকুঠি বাড়ী পর্যটন কেন্দ্রেও দেখা যায়নি ঈদ উপলক্ষে মানুষের কোন ঘোরাঘুরি। বিশ্ব মহামারী করোনা ভাইরাস কভিড-১৯- এর প্রাদূর্ভাবে মানুষ আজ কর্মহীন ঘরবন্দী। মেহেরপুরে মানুষের মধ্যে এবার এই অন্য রকম ঈদে বিন্দু মাত্রা আনন্দের চিত্র খুজে পাওয়া যায়নি।

মেহেরপুরে প্রবেশদ্বারে বাংলাদেশ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কড়ানিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও জনপ্রতিনিধিদের অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে মেহেরপুরের মানুষকে সচেতন রাখার পাশাপাশি কর্মহীন পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার মধ্য দিয়ে আজ মেহেরপুরবাসীকে এই কভিড-১৯ থেকে এখনও পর্যন্ত অনেক ভাল ও স্বুস্থ্য রাখার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে অব্যাহত রেখেছেন।