বিভাগ - সারাদেশ

মৌলভীবাজার সংক্ষিপ্ত আকারে পবিত্র শবে বরাত পালিত হবে

প্রকাশিত

আলী হোসেন রাজন,মৌলভীবাজার: যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদায় ৯ এপ্রিল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে পালিত হবে পবিত্র লাইলাতুল বরাত বা শবে বরাত। এ উপলক্ষে মৌলভীবাজার শহর ও গ্রামের মসজিদ মাদ্রাসায় বাদ মাগরিব থেকে পবিত্র কোরআন তিলাওয়াত, হামদ-নাত, ওয়াজ মাহফিল, নামাজ, মিলাদ ও বিশেষ মোনাজাত করা হতো।

দিবাগত রাতটি বিশ্ব মুসলিম উম্মাহ পবিত্র শবে বরাত বা সৌভাগ্যের রজনী হিসেবে পালন করেন। মুসলিম সম্প্রদায়ের জন্য এ রাত ‘লাইলাতুল বরাত’ হিসেবে পরিচিত। বিশ্বের ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ মহান আল্লাহর রহমত ও নৈকট্য লাভের আশায় নফল নামাজ, কোরআন তিলাওয়াত, জিকির, ওয়াজ ও মিলাদ মাহফিলসহ এবাদত-বন্দেগির মধ্য দিয়ে শবে বরাত অতিবাহিত করতেন।

কিন্তু এবার করোনা ভাইরাস ( কভিড ১৯)। যার কারনে নানা আয়োজনে হচ্ছে না পবিত্র শবে বরাত । হচ্ছে না হামদ-নাত, ওয়াজ মাহফিল, কেরাত প্রতিযোগীতা । প্রতি শবে বরাতে কোন না কোন মসজিদে বা মাদ্রাসায় হতো কেরাত প্রতিযোগীতা, হামদ-নাত প্রতিযোগীতা। থাকতো মসজিদে মসজিদে মুসল্লিদের উপচে পড়া ভিড়,মসজিদে নামাজ পড়ে মুসল্লিরা চলে আসতো মাজার জিয়ারতে,এক মাজার থেকে অন্ন মাজারে মুসলিদের আসা যাওয়া হতো। সারা রাতেই থাকতো মুসল্লিদের পদচারণা। ৫ এপ্রিল মৌলভীবাজার পৌরসভার সভাকক্ষে পৌর মেয়র মোঃ ফজলুর রহমানের সভাপতিত্বে পৌর এলাকার মসজিদের খতিব ও ইমামগনের সাথে করোনা ভাইরাসের কারনে পবিত্র শবে বরাত সংক্ষিপ্ত আকারে পালন করতে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা পুলিশ সুপার জনাব ফারুক আহমেদ, ইসলামিক ফাউন্ডেশন মৌলভীবাজারের প্রতিনিধি শাব্বির হোসেন খান। সভায় পবিত্র শবে বরাত সংক্ষিপ্ত আকারে পালন এবং কোরআন তেলাওয়াতসহ সকল নফল ইবাদত নিজ নিজ ঘর/বাসায় করার জন্য সিদ্ধান্ত হয়। এ ব্যপারে খতিব ও ইমামগণ মুসল্লীদের সচেতন করার জন্য অনুরোধ করা হয়। রাতভর ইবাদত বন্দেগী আর দীর্ঘ সেজদার পর মুমিন মুসলমানরা মোনাজাতের জন্য দু’হাত তুলে ধরেন মহান আল্লাহ পাকের দরবারে। পাপ মুক্তি আর পরম করুনাময়ের অপার সন্তুষ্টি অর্জনে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন অনেকে। মহান আল্লাহ রাব্বুল আল আমীনের অপার অনুগ্রহ কামনা করেন সবাই।

আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা এবং দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মার শান্তি, সমৃদ্ধি কামনার মধ্যদিয়ে শেষ হবে ইসলাম ধর্মানুসারীদের জন্য মহিমান্বিত রাত পবিত্র শবে বরাত।