যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আরও ১০ বাংলাদেশির মৃত্যু, মোট ২১৬

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ: করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে আমেরিকায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১০ জন বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় সংক্রমিত হয়ে ২১৬ বাংলাদেশির মৃত্যু হলো।

২৮ এপ্রিল করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে মৃত্যু হওয়া ১০ বাংলাদেশি হলেন বাহাত্তান সরকার (৯৪), আমিরুন্নেসা খাতুন (৮৮), মোহাম্মদ মফিজ উদ্দিন (৭০), পারভিন জাফর (৭০), বিবি আয়েশা (৭০), আলী হোসেন ব্যাপারী (৮৪), লোকনাথ সাহা (৫৬), মোহাম্মদ এবায়েদ উল্ল্যাহ (৮২) কামরুল বাশার জামি ও মওলানা মোহাম্মদ ইউসুফ (৬০)।

আমেরিকায় করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হওয়া রোগীর সংখ্যা ১০ লাখ ৩৫ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। এ ছাড়া দেশটিতে এই ভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা এখন ৫৯ হাজারের বেশি। নিউইয়র্কের রাজ্য গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমো ২৮ এপ্রিল তাঁর রাজ্যে মৃত্যুর তালিকায় ৩৩৫ জনের নাম যুক্ত হয়েছে বলে জানান। নিউইয়র্কে সাড়ে ১৭ হাজার পেরিয়ে গেছে মোট মৃত্যুর সংখ্যা এবং রাজ্যের প্রায় তিন লাখ মানুষ এখনো করোনাভাইরাসে সংক্রমিত।

কুমো বলেছেন, হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা দিনে এক হাজারের কমে নেমে এসেছে। ৩৩৫ জনের মৃত্যুকেও দুঃখজনক উল্লেখ করে তিনি বলেন, ৩৩৫টি পরিবার এক দিনেই আপনজন হারিয়েছে। এমন বেদনার যাত্রা দ্রুত অবসান হবে।

নিউইয়র্কের মেয়র বিল ডি ব্লাজিও বলেছেন, এবারে হাইস্কুল সিনিয়রদের সমাবর্তন অনুষ্ঠান নগরীজুড়ে একসঙ্গে করা হবে। এমনভাবে এই সমাবর্তন অনুষ্ঠান করা হবে, যা শিক্ষার্থীদের সারা জীবন মনে থাকবে। এবারের স্কুলশিক্ষার্থীদের জন্য নতুন গ্রেড পদ্ধতি ভিন্নভাবে করা হবে। এ নিয়ে বিস্তারিত তুলে ধরে ২৮ এপ্রিল সংবাদ সম্মেলন করেছেন নগরীর মেয়র।

২৮ এপ্রিল রাতে নগরীর উইলিমসবার্গ এলাকায় এক ইহুদি ধর্মগুরুর ফিউনারেলে শত শত মানুষের উপস্থিতির কড়া সমালোচনা করেছেন মেয়র ডি ব্লাজিও। এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, বিষয়টি মোটেই গ্রহণযোগ্য নয়। এমন ঘটনাকে কঠোরভাবে দমন করা হবে। সতর্ক করে দেওয়ার সময় অনেক আগেই শেষ হয়েছে। লকডাউন ও সামাজিক বিচ্ছিন্নতার আদেশ অমান্যকারীদের সমন প্রদান, এমনকি গ্রেপ্তার করার জন্য এনওয়াইপিডি সদস্যদের নির্দেশ দিয়েছেন মেয়র।