যেকোনো পোস্ট শেয়ারের আগে খোঁজ নিন, সত্য কি না: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ: ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বা অনলাইনে কোনো তথ্য পেলেই তা সত্য হিসেবে ধরে নেওয়ার আগে খোঁজ নিয়ে যাচাই করার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, অনলাইনে কোনো তথ্য পেলেই তা যাচাই না করে তা শেয়ার করা বা তাতে মন্তব্য করা ঠিক নয়। এতে করে অনেক সময় ব্যক্তির ক্ষতি হয়ে যায়, সমাজের ক্ষতি হয়ে যায়। তাই যেকোনো পোস্ট শেয়ার করার আগে খোঁজ নিয়ে দেখতে হবে তা কতটুকু সত্য বা কতটুকু মিথ্যা। এটা খুব জরুরি।

বুধবার (৮ জানুয়ারি) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে তৃতীয় ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস ২০১৯ সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তিনি।

অনুষ্ঠানে সরকারের মাই গভ অ্যাপ উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় জানানো হয়, এই একটি অ্যাপের মাধ্যমে সরকারের ১৭২টি সেবা নিতে পারবেন সাধারণ মানুষ। শুধু তাই নয়, কেউ বিপদে পড়লে অ্যাপটি খুলে মোবাইল ফোন ঝাঁকালে সরাসরি জাতীয় জরুরি সেবার হটলাইন ৯৯৯ নম্বরে ফোন চলে যাবে। অনুষ্ঠানে ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে ভূমিকা রাখায় বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃতও করা হয়। তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন সরকারপ্রধান।

ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে সরকারের গৃহীত বিভিন্ন উদ্যোগ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। আমরা বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণ করেছি। এরই মধ্যে সেটি কার্যক্রম শুরু করেছি। আমরা এখন দ্বিতীয় স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের প্রস্তুতির উদ্যোগ নিয়েছি। ১০ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্টের কাজ শুরু হয়েছে। শিগগিরই এই সেবা চালু হবে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ই-ভিসা রয়েছে, আমরা এই সেবাও চালু করব। দেশের অনেক এলাকাতেই এখন ফোরজি সেবা ছড়িয়ে পড়েছে। আমরা শিগগিরেই ফাইভজি সেবাও চালু করব। পর্যায়ক্রমে সারাদেশে যেন এসব সেবা ছড়িয়ে যায়, আমরা সেই ব্যবস্থা নিচ্ছি।

তবে ডিজিটাল দিক থেকে দেশ এগিয়ে গেলেও সাইবার নিরাপত্তা ও অনলাইনে তথ্যের বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে সবার সচেতন হওয়া প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেন শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, অনলাইনে অনেক কিছু করার সুযোগ রয়েছে। তবে এর সঙ্গে অনাকাঙ্ক্ষিত অনেক কিছুও চলে আসে। এগুলো ফিল্টারিংয়ের ব্যবস্থা করতে হবে। অনেক সময় অনলাইনে কারও বিরুদ্ধে কথা ছড়ানো হয়, যেগুলো সম্পূর্ণ ভুয়া। এগুলো থেকে কিভাবে নিরাপদ থাকা যায়, তা নিশ্চিত করতে হবে। কিছু একটা এলেই রিয়্যাক্ট করা বা যাচাই না করেই মন্তব্য করে বসা— এই প্রবণতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। গুজবে কান দেওয়া যাবে না। অনলাইনের অনেক কনটেন্ট আছে, শুধু কৌতূহলের বশে সেগুলোতে প্রবেশ না করাই ভালো। অনলাইনে কিছু শেয়ার করার আগে তা যাচাই করে নিলে তা সমাজের জন্য ভালো, দেশের জন্য ভালো, ব্যক্তি জীবনেও তা মঙ্গল বয়ে আনবে।

শিশু-কিশোর ও তরুণদের মধ্যে ডিজিটাল ডিভাইসে যেন আসক্তি তৈরি না হয়, সে বিষয়েও সবাইকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, শিশুদের হাতেও এখন মোবাইল ফোন চলে গেছে। কিন্তু তারা কী দেখছে, তা মনিটরিং করতে হবে। অনেক সময় শিশু-কিশোর ও তরুণদের হাতে মোবাইল থাকলে তা তাদের মধ্যে আসক্তি তৈরি করে। এতে তাদের মনের ওপর চাপ পড়ে, শরীরের ওপর চাপ পড়ে, চোখ ও মস্তিষ্কের ক্ষতি হয়। এসব বিষয়ে সচেতনতা জরুরি। শিশু-কিশোররা যেন মোবাইলে আসক্ত হয়ে না পড়ে, সে বিষয়ে সবাইকে সচেতন থাকতে হবে।