বিভাগ - সারাদেশ

রাজাপুরে ত্রানের কালভার্ট নির্মানে ব্যাপক অনিয়ম স্থানীয়দের প্রতিরোধে কাজ বন্ধ

প্রকাশিত

মো.অহিদ সাইফুল: ঝালকাঠির রাজাপুরে ত্রানের কালভার্ট নির্মান কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে স্থানীয়দের প্রতিরোধের মুখে ঠিাকাদার তার নিম্নমানের নির্মান সামগ্রীর কাজ বন্ধ করতে বাধ্য হয়। বুধবার সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সোহাগ হাওলাদার ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেন। সরেজমিনে গেলে স্থানীয় মোঃ রুহুল আমিন, মোঃ শাহাদাৎ হোসেন, মোঃ মিরাজ হোসেনসহ অনেকে জানায়, ঝালকাঠির মেসার্স খাদিজা ট্রেডার্স ত্রান মন্ত্রনালয়ের অধিনে ১৭ লক্ষ ৩৫ হাজার টাকা ব্যয়ে উত্তর তারাবুনিয়া ছিদ্দিকীয়া দাখিল মাদ্রাসার সামনের খালের ওপর ২০ ফুট দৈর্ঘ একটি কালভার্ট নির্মানের কাজ শুরু করে। নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে রাতের আধারে ঠিকাদারের ইচ্ছে মতো নি¤œমানের নির্মান সামগ্রী দিয়ে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। কাজে নিয়ম অনুযায়ী পাথর দিয়ে কাজ করার কথা থাকলেও ঠিকাদার বেশি লাভের আশায় পাথরের পরিবর্তে নিম্নমানের ইটের খোয়া ব্যবহার করছেন। যা একটু পানি পেলেই দূয়ে যাবে।

খালের দুই পাশে বাঁধ দেয়ার নিয়ম থাকলেও বাদ না দিয়েই পানির মধ্যেই ডালাই কাজ চালিয়ে যায়। লাল (সিলেটচান) বালির পরিবর্তে ব্যবহার করা হচ্ছে সাধা বালু তাও আবার নিম্মমান। এ ব্যাপারে মেসার্স খাদিজা ট্রেডার্স এর প্রোপাইটার মোঃ তহিদুল ইসলাম এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানায়, কাজটি আমার ছোট ভাই শিমুল করাচ্ছে। কাজের ওখানে কি হয়েছে তা আমি জানিনা। তবে খোঁজ নিয়ে দেখছি।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ মামুন-অর-রশিদ জানায়, আমাকে না জানিয়েই রাতের আধারে ঠিকাদার কালভার্টের ডালাই দিয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সোহাগ হাওলাদার জানান, স্থানীয়দের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঘটনার সত্যতা পেয়ে কাজ বন্ধ করে দিয়েছি। কাজের স্থলে যে সকল নিম্ন মানের নির্মান সামগ্রী রয়েছে তা সরিয়ে ফেলে নিয়ম মোতাবেক নির্মান সামগ্রী এনে কাজ শুরু করার আগে আমাকে অবহিত করার নির্দেশ দিয়েছি।