রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার দূরদর্শীতায় সকল চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে: শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ: শিক্ষামন্ত্রীডা. দীপুমনি এমপি বলেছেন, রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার দূরদর্শীতায় নানান প্রতিকূলতা ও চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে বাংলাদেশ অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশ এখন সারা বিশ্বের উন্নয়নের বিস্ময়। উন্নয়নের এধারা অব্যাহত রাখার জন্য পরিবর্তিত প্রযুক্তি মুখী শিক্ষার বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির আবেদনকে পাশ কাটিয়ে প্রচলিত শিক্ষা দিয়ে ৪র্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করা সম্ভব হবে না বিধায় বৈশ্বিক পরিবর্তন ও প্রযুক্তিক কর্মবাজারের চাহিদা বিবেচনায় সরকার সমগ্র শিক্ষা ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নিয়েছে। শিক্ষাকে জীবন ব্যাপী উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, আজ আমরা যা শিখছি পরিবর্তিত প্রেক্ষাপটে তা অচল হয়ে পড়ে। এক্ষেত্রে শিক্ষার পাশাপাশি প্রশিক্ষণের বিশেষ ভূমিকা রয়েছে। তিনি বলেন, বিশ্বের যে কোন দেশের তুলনায় আমাদের দেশের মানুষের মেধাও সৃজনশীলতা শক্তি কোন অংশে কম নয়। আমাদের জনগোষ্ঠি যে কোন পরিবর্তিত পরিস্থিতি সহজে আয়ত্ব করার ক্ষমতা রাখে। এ অদম্য মেধাকে কাজে লাগিয়ে ৪র্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ ও জাতি সুচারু রূপে মোকাবেলা সক্ষম হবে।

তিনি বৃহস্পতিবার রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর ডিপ্লোমা প্রকৌশলী সমিতির জাতীয় সম্মেলন ২০২০ ও ২৪তম কাউন্সিল অধিবেশনে প্রধান প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

দীপু মনি বলেন, এ লক্ষ্যে প্রযুক্তিগত শিক্ষায় শিক্ষিত জনগোষ্ঠী তৈরি করতে কাজ করা হচ্ছে। পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটগুলোকে আরও উন্নত করার পরিকল্পনার অংশ হিসেবে এবং ইনস্টিটিউটসমূহের শিক্ষক সংকট দূরীকরণে শীঘ্রই ৭ হাজার শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে।

শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর ডিপ্লোমা প্রকৌশলী সমিতির সভাপতি আলতাফ আহমেদের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন, কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের সচিব মুনশী শাহাবুদ্দিন আহমেদ, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী ইঞ্জিনিয়ার বুলবুল আক্তার এবং ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সভাপতি একে এম এ হামিদ।

মন্ত্রী বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লব সম্পর্কে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ ঘোষণার ফলে আমরা চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় এক ধাপ এগিয়ে রয়েছি।

error0