বিভাগ - বিনোদন

র‍্যাবের প্রশিক্ষণ নিলেন রিয়াজ-সিয়াম-রোশান

প্রকাশিত

বিনোদন ডেস্ক: ‘ঢাকা অ্যাটাক’-খ্যাত নির্মাতা দীপঙ্কর দীপনের ছবি ‘অপারেশন সুন্দরবন’-এর উপজীব্য র‍্যাবের লোহমর্ষক অভিযান এবং সুন্দরবনে বনদস্যু শুদ্ধি অভিযান। আর ওই ছবিতে র‍্যাব কর্মকর্তার ভূমিকায় অভিনয় করতে যাচ্ছেন রিয়াজ-রোশান-সিয়াম। স্ক্রিনে যথাযথভাবে নিজেদের ফুটিয়ে তুলতে আগে থেকেই র‍্যাবের বিভিন্ন প্রশিক্ষণ নিলেন এ তিন চিত্রতারকা।

চিত্রনায়ক সিয়াম আহমেদ বলেন, প্র্যাকটিস এবং এডুকেশনাল দুই ধরণের প্রশিক্ষণ নিয়েছি। তিনি বলেন, ফিল্ডিং, বন্দুক সাথে থাকলে কীভাবে স্যালুট দিতে হয়, বন্দুক না থাকলে কীভাবে স্যালুট দিতে হয়, অপারেশনে রেড দেওয়া, ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন, ফরেনসি- এগুলোর উপর প্রশিক্ষণ নিয়েছি। তাৎক্ষনিক আত্মরক্ষার উপায়সহ অপারেশনে গিয়ে ১৪টি বন্দুক চালানো ব্যবহার জেনেছি। সবমিলিয়ে চরিত্রের জন্য এটা আমার কাছে এক অদ্ভুদ অভিজ্ঞতা হয়েছে।

নির্মাতা দীপন জানান, গাজীপুর র‍্যাব প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে ১৪-১৬ নভেম্বর তিনদিন প্রশিক্ষণ নিয়েছেন রিয়াজ, সিয়াম, রোশান। র‍্যাবে যোগদানের শুরুতে যে বেসিক প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় তাদেরও একই প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। পোশাক, বুট পরিধান, জঙ্গলে অভিযান, অস্ত্র চালানো, কারিগরি কৌশল, অপরাধী ধরা- সবকিছুই তারা তিনদিনে শিখেছেন।

র‍্যাব সদস্যদের বেসিক প্রশিক্ষণ নিতে হয় সাতদিনে। কিন্তু রিয়াজ, রোশান, সিয়ামের লেগেছে তিনদিন! এরমধ্যেই তারা বেসিক ধারণা পেয়েছেন। র‍্যাবের যেসব স্পেশাল কর্মকর্তারা প্রশিক্ষণ নিয়েছেন, পরে তারা বলেছেন এই তিনজনই ‘কুইক লার্নার’ এবং ভালো পারফর্মার। এবার তারা ক্যামেরার সামনে নিজেদের র‍্যাব কর্তা হিসেবে উপযুক্তভাবে ডেলিভারি দিতে পারবেন বলে মনে করছেন দীপঙ্কর দীপন।

এরজন্য এই নির্মাতা কৃতজ্ঞতা জানান, অতিরিক্ত ডিআইজি চৌধুরী মঞ্জুরুল কবির (বিপিএম-সেবা), পিপিএম (বার) লে. কর্নেল মো. সারোয়ার বিন কাশেম বিপিএম (সেবা), পিএসসি, এসি এবং মেজর হুসাইন রইসুল আজম মনি, এসিকে। কারণ তারাই ছিলেন এই তিন চিত্রতারকার প্রশিক্ষক।

‘অপারেশন সুন্দরবন’ নিয়ে নির্মাতার ভাষ্য, বিশ্বের সবচেয়ে বড় ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবনে একসময় জলদস্যুদের অবাধ বিচরণ ছিল। যার ফলে সুন্দরবন ছিল সাধারণ মানুষের জন্য ভয়ের একটি জায়গা। এমনকি সুন্দরবনের জেলে, মৌয়ালও জীবিকা নির্বাহের জন্য মাছ ধরতে ও মধু সংগ্রহ করতে পারত না। এখন সুন্দরবন দস্যুশুন্য। র‌্যাবের চৌকষ বাহিনীর একের পর এক অভিযানে সুন্দরবন হয়েছে দস্যুহীন। র‌্যাবের এই দুঃসাহসিক অভিযানকে উপজীব্য করেই নির্মিত হবে ‘অপারেশন সুন্দরবন’।

রিয়াজ-সিয়াম-রোশান ছাড়াও অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করছেন নুসরাত ফারিয়া, তাসকিন রহমান, মনোজ প্রামানিক , সামিনা বাশার, দীপু ইমাম, এহসানুর রহমান প্রুমখ।

র‍্যাব ওয়েলফেয়ার কো-অপারেটিভ সোসাইটির প্রযোজনায় নির্মিতব্য ‘অপারেশন সুন্দরবন’। নির্মাতা দীপন জানান, চলতি মাসেই সাতক্ষীরার উপকূলীয় এলাকা মুন্সিগঞ্জে টানা ১২ দিন শুটিং হবে অপারেশন সুন্দরবন’-এর। এরপর খুলনায় হবে বাকি কাজ। ছবিটি মুক্তির সম্ভাব্য তারিখ ২০২০ সালের ঈদুল আযহা।