বিভাগ - সারাদেশ

শরীয়তপুরে আংগারিয়ার মাদরাসা  ছাত্র হত্যায় দুই আসামী গ্রেপ্তার

প্রকাশিত

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: শরীয়তপুরের সদর উপজেলার আংগারিয়া ইউনিয়নের উত্তর ভাষানচরের মাদরাসা ছাত্র মো. ওসমান মাদবর হত্যা মামলার দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার শরীয়তপুর শহরের পাকারমাথাস্থ এলাকা থেকে তাদের আটক করে সিআইডি। গ্রেপ্তারকৃত আসামীরা হলেন, উপজেলার উত্তর ভাষানচর গ্রামের মৃত জামর কাজীর ছেলে আলী হোসেন কাজী ও মৃত কালু সরদারের ছেলে আবদুল খালেক সরদার।
পরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা, সিআইডি পুলিশ পরিদর্শক মো. আলমগীর হোসেন সাত দিনের রিমান্ড আবেদনসহ আসামীদের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করেন। শুনানির পর আদালত আসামিদের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে।
জানা গেছে, দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পর শরীয়তপুর জেলা সিআইডি পুলিশ আলমগীর হোসেনের নেতৃত্বে গোপন তৎপরতা চালিয়ে এই দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়। আসামি আলী হোসেন কাজীর বিরুদ্ধে পালং থানায় ডাকাতিসহ আরও চারটি ও খালেক সরদারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগে আরও ছয়টি মামলা রয়েছে। এছাড়াও পার্শ্ববর্তী মাদারীপুর ও ঢাকা জেলাসহ বিভিন্ন জেলায় ডাকাতি মামলা রয়েছে এই আসামীদের বিরুদ্ধে।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডি পুলিশ পরিদর্শক মো. আলমগীর হোসেন বলেন, হত্যাকান্ডের পর থেকেই সন্দেহভাজন আসামী মো. আলী হোসেন কাজী ও আবদুল খালেক সরদার পলাতক ছিল। আসামিরা প্রাথমিকভাবে হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। আরও তথ্য উদঘাটনের জন্য সাত দিনের রিমান্ড আবেদনসহ আসামিদের আদালতে হাজির করি। আদালত রিমান্ড মঞ্জুর করেছে। মামলা তদন্তাধীন রয়েছে।
উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ২৩ জুলাই দাদপুর নতুনহাট এলাকার  নোমানিয়া কওমিয়া আরাবিয়া মাদরাসার ছাত্র ও উত্তর ভাষানচর গ্রামের ইদ্রিস মাদবরের ছেলে মো. ওসমান মাদবর দুপুরের খাবার খেয়ে মাদরাসায় যায়। সন্ধ্যা ৬টায় মাদরাসার কাছেই নতুনহাট বাজারে গিয়ে আর মাদরাসায় ফেরেনি। পরদিন নতুনহাট বাজারের কাছে আখ ক্ষেতে তার লাশ পাওয়া যায়। এই ঘটনায় পালং মডেল থানায় ওই বছরের ২৫ জুলাই মামলা দায়ের করা হয়।