শিক্ষাঙ্গনে এগিয়ে রাজারহাট আর্দশ বি এল উচ্চ বিদ্যালয়

প্রকাশিত

এ.এস.লিমন,রাজারহাট(কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধিঃ কুড়িগ্রামের রাজারহাটের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আর্দশ বি.এল উচ্চ বিদ্যালয়। রাজারহাট বাজারের প্রাণ কেন্দ্রে ১৯৬৪সালে স্থাপিত হয় আর্দশ বি এল উচ্চ স্কুল। হাঁটিহাঁটি পা পা করে সফলতার ৫৫ বছর পেরিয়ে আধুনিক শিক্ষায় মানসম্পন্ন বিকাশে এক দাপ এগিয়ে রাজারহাটের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রুপ নিয়েছে আর্দশ বি এল উচ্চ বিদ্যালয়। প্রধান শিক্ষক লুৎফর রহমান আশু যোগদান করার পর থেকেই অসামান্য অবদান রেখে চলেছে বিদ্যালয়টি। শিক্ষা জাতির মেরুদন্ড। শিক্ষিত জাতি ছাড়া পৃথিবীতে মাথা উচুঁ করে দাঁড়ানো সম্ভব নয়। অশিক্ষিত ও মূর্খ মানুষ কেবল পরিবারের নয় রাষ্ট্রের জন্যও বোঝা স্বরূপ।

সঙ্গত কারনেই প্রত্যেক শিশুকে শিক্ষার আওতায় নিয়ে আসা যেমন সরকারের দায়িত্ব তেমনি সমাজের প্রত্যেক নাগরিকেরও অবশ্য করনীয় একটা কাজ। এরই ধারাবাহিকতাই প্রত্যেক পরিবারে মাঝে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দেওয়ার লক্ষ্যে নিজ উদ্যোগে প্রধান শিক্ষক লুৎফর রহমান আশু দিনভর কাজ করে যাচ্ছেন।

শিক্ষার মান প্রসারে সৃজনশীলতার আঙ্গীকে অভিঙ্গ শিক্ষক-শিক্ষিকা দ্বারা সেবা দিয়ে যাচ্ছে দরিদ্র ও মেধাবী সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মাঝেও। শিক্ষার পাশাপাশি প্রতিটি কার্য দিবসসহ সাংস্কৃতিক আঙ্গীনায়ও পিছিয়ে নেই স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা। ভালো ফলাফলের পাশাপাশি প্রতিবছর ৭ হতে ৮ জন শিক্ষার্থী এ+ পেতে সক্ষম হয়।

প্রতিষ্ঠানটি সম্পর্কে অভিভাবকদের কাছে জানতে চাইলে তাঁরা জানান শুধু প্রধান শিক্ষক নয়, উক্ত প্রতিষ্ঠানের সকল শিক্ষক শিক্ষিকা তাদের সাধ্যমতো খুবই যত্ন সহাকারে স্কুলের সকল শিক্ষার্থীকে সৃজনশীলতার আঙ্গীকে নিত্য নতুনভাবে শিখিয়ে যাচ্ছেন। তারা আরও জানান, শিক্ষার পাশাপাশি নৈতিক শিক্ষার উপরও বেশ জোড় দেয় প্রতিষ্ঠানটি।তাই প্রত্যেক অভিভাবকই প্রতিষ্ঠানের সফলতা কামনা করেন।

স্কুল সম্পর্কে আর্দশ বি এল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লুৎফর রহমান আশু বলেন, আজকের শিশুরাই কিন্তু আগামী দিনের ভবিষ্যত। শিশুরাই জাতির শ্রেষ্ঠ সম্পদ। তাই তাদের ভালো শিক্ষার পাশাপাশি নৈতিক শিক্ষা দিয়ে গড়ে তুলতে হবে। আমার নিজ এলাকায় সেই শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দেওয়ার লক্ষে আমি এই প্রতিষ্ঠানটিতে ১৫বছর ধরে কাজ করে আসছি। প্রতিটি ঘরে ঘরে যেন শিক্ষার আলো ছড়িয়ে পড়ে এই অঙ্গীকার নিয়ে প্রতিনিয়ত নিত্য নতুন সেবা দিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। তিনি আরও বলেন, এছাড়াও আমাদের এই প্রতিষ্ঠানটিতে সুবিধা বঞ্চিত মেধাবী ও দরিদ্র ছাএ-ছাএীর জন্য বিশেষ ব্যবস্থা রয়েছে।

error0