বিভাগ - খেলাধুলা

শ্রীলঙ্কা পারলে বাংলাদেশ কেন নয়: সাকিব

প্রকাশিত

খেলাধুলা ডেস্ক: টি-টোয়েন্টি বলে কথা। নিজের দিনে যে কেউ যে কাউকে হারাতে পারে। পাকিস্তান টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এক নম্বর দল। বাংলাদেশের অবস্থান নয়ে। কিন্তু বাংলাদেশ থেকে এক ধাপ উপরে থাকা শ্রীলঙ্কা কদিন আগেই পাকিস্তানকে ধবলধোলাই করেছে। সেটাও আবার পাকিস্তানের ঘরের মাঠে।

পাকিস্তান ঘরের মাঠেই বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি খেলতে যাচ্ছে। সব ঠিক থাকলে হয়তো পাকিস্তান সিরিজে দলকে নেতৃত্ব দিতেন সাকিব আল হাসান। কিন্তু আইসিসির এক বছরের নিষেধাজ্ঞার কারণে খেলা হচ্ছে তাঁর। তবে সিরিজের আগে বাংলাদেশকে শ্রীলঙ্কার কাছ থেকে অনুপ্রেরণা নেওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন সাকিব।

কাল ডেইলি স্টার মিলনায়তনে লাইফবয়ের পণ্যদূত হিসেবে চুক্তি নবায়ন অনুষ্ঠানে সাকিব বলেছেন, ‘আমি আশা করি সবাই যেন নিরাপদে যেতে পারে এবং খেলে ফিরে আসতে পারে। অবশ্যই বাংলাদেশের জন্য সাফল্য নিয়ে আসতে পারে। শ্রীলঙ্কা শেষবার যখন পাকিস্তান গেল, ওরা ৩-০ তে জিতে এসেছে। তো আমাদেরও ভালো ফল করা উচিত।’

২০১৯ সালেই হয়তো ক্যারিয়ারের সেরা সময়টা পার করছিলেন সাকিব আল হাসান। বিশ্বকাপে তো করেছেন অবিশ্বাস্য পারফরম্যান্স। কিন্তু এরপরই হুট করে বদলে যায় তার পরিবেশ। বাজিকরদের সঙ্গে যোগাযোগের কথা না জানিয়ে নিষিদ্ধ হয়ে যান সব ধরনের ক্রিকেট থেকেই। বাংলাদেশ দলে কমপক্ষে এক বছরের জন্য নেই তিনি। তবে এ সময়টায় টাইগারদের ‘সবচেয়ে বড় ফ্যান’ হয়েই দলকে সমর্থন দিয়ে যাবেন দেশের সেরা অলরাউন্ডার।

বুধবার (২২ জানুয়ারি) হেলথ সোপ ব্র্যান্ড লাইফবয়ের সঙ্গে আরও তিন বছরের চুক্তি বাড়িয়েছেন সাকিব। চুক্তি নবায়নের ঘোষণার দিনে একটি বিশেষ ভিডিও প্রকাশ করেছে লাইফবয়, সেখানে বাঁহাতি তারকাকে বলেছেন, ‘আমি সাকিব আল হাসান। এ ২২ গজই আমার ঠিকানা। কঠিন সময় যাচ্ছে। কিন্তু ফিরব আরও কঠিন হয়ে। চেষ্টা করে চলেছি রাত-দিন অবিরাম। লাল-সবুজ গায়ে মাঠে ফিরতে। আর এ কয়েকদিন ১১ জনের দলে না থাকলেও আছি টাইগারদের সাথেই সবচেয়ে বড় ফ্যান হয়ে। মনে একটাই স্লোগান, খেলবে টাইগার, জিতবে টাইগার। সাথে আছেন তো?’

শুধু তাই নয়, আয়োজন করা সংবাদ সম্মেলনেও উঠে আসে আরও কিছু প্রসঙ্গ। জানতে চাওয়া হয়, ক্রিকেটকে কতটুকু মিস করছেন সাকিব? তবে এর উত্তরটা সরাসরি দেননি অলরাউন্ডার, ‘একটা জিনিসের সঙ্গে যদি আপনার সম্পৃক্ততা থাকে, সেটা আপনার পছন্দের হোক বা পছন্দের না হোক, আপনি সেটাকে মিস করবেন, এটা খুবই স্বাভাবিক। আমার ক্ষেত্রেও ভিন্ন কিছু না। স্বাভাবিকভাবেই আমার জন্য কঠিন।’

তবে তার পাশে থাকা ইউনিলিভারের মার্কেটিং ডিরেক্টর নাফিস আনোয়ার বললেন, ‘সাকিব তো বলেছেনই, তিনি এখন ফ্যান হয়ে ক্রিকেটের সঙ্গে থাকছেন।’ আর সাকিবও তখন মাথা দুলিয়ে যেন বুঝিয়ে দিলেন, মাঠে না থাকলেও মন থেকে টাইগারদের সঙ্গেই আছেন সবসময়।