সচেতনতা মুখে নয়, কাজে প্রমাণ দিই: কমিশনার তারেক সোলেমান

প্রকাশিত

জে.জাহেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: সারাবিশ্বে করোনাকাল। দেশে সামনে বর্ষা মৌসুম। গতকালও ডেঙ্গুতে একজন মারা গেছেন। এমন প্রেক্ষাপটে জলাবদ্ধতা নিরসণে আলকরন ওয়ার্ডে ভরাট হয়ে যাওয়া ছোট বড় নালা-নর্দমা থেকে জরুরী ভিত্তিতে মাটি-ময়লা আর্বজনা উত্তোলন ও অপসারণ করতে কার্যক্রম চালিয়ে ওয়ার্ড কমিশনার তারেক সোলেমান সেলিম।

গত কয়েকদিন ধরে ধারাবাহিকভাবে স্টেশন রোড, বানিয়াটিলা, জিন্নাহ গলি, ইঞ্জিনিয়ারিং কলোনি, ফলমন্ডি এলাকা, তামাকুমন্ডি লেইন, বৃহত্তর রিয়াজুদ্দিন বাজার, সদরঘাট রোড, আলকরনস্থ হাজি বাড়ি, চেয়ারম্যান বাড়ি, খ্রিস্টান পাড়া, রাখাল কলোনি, দোভাষ কলোনি, কবি নজরুল ইসলাম রোড, পি কে সেন কম্পাউন্ড, সদরঘাট পোর্ট কলোনি, পোস্ট অফিস গলি, শাহজাহান গলি, বোস গলি, শেঠ পাড়াসহ এলাকার প্রতিটি ছোট বড় নালা নর্দমা থেকে মাটি উত্তোলন ও অপসারণে সিটি কর্পোরেশনের সহযোগিতায় কাজ অব্যাহত রেখেছেন।

এক বিবৃতিতে তারেক সোলেমান সেলিম জানান, ‌এলাকার কয়েকটি স্থানে জলাবদ্ধতা থাকলেও বেশিরভাগ স্থানের জলাবদ্ধতা মানবসৃষ্ট। এছাড়াও চলমান সংকট মহামারী করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখা সকলের দায়িত্ব। ময়লা আবর্জনা প্লাস্টিক পলিথিন যত্রতত্র নিক্ষেপ না করে ওয়ার্ডে কর্মরত ডোর টু ডোর শ্রমিক ও পরিচ্ছন্ন সেবক ভাইদের দিয়ে পরিচ্ছন্ন কাজে অংশগ্রহণ করার অনুরোধ করেন তিনি।’

পাশাপাশি নালা নর্দমা দখল করে গড়ে তোলা অবৈধ স্থাপনা নিজ উদ্যোগেই দ্রুত সরিয়ে নেওয়ার অনুরোধ জানান। তিনি বলেন, ‌আসুন সচেতনতা মুখে মুখে নয়, কাজে প্রমাণ দিই সকলেই।’