সিলেটে অ্যাম্বুলেন্সেই আড়াই ঘণ্টা, ৫ হাসপাতাল ঘুরে বিনাচিকিৎসায় মৃত্যু!

প্রকাশিত

সিলেট নগরীর পশ্চিম কাজিরবাজার মোগলটুলা এলাকার বাসিন্দা সংকটাপন্ন একজন মহিলা রোগীকে চিকিৎসা প্রদানে অস্বীকৃতি ও অবহেলার অভিযোগ উঠেছে কয়েকটি বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে। জানা গেছে, রোববার দিবাগত রাত ১২ থেকে অসুস্থ্য এই রোগীনিকে ভর্তি করতে ৫টি হাসাতালের সংশ্লিস্ট ডাক্তারদের কাকুতি-মিনতি করেও ভর্তি করাতে পারেননি তার স্বজনরা।

অবশেষে রাত প্রায় আড়াইটার দিকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। যেসব হাসপাতালে এই রোগীকে নিয়ে বিনা চিকিৎসায় ফিরে এসেছেন স্বজনরা। সে সব হাসপাতালগুলো হলো আল হারামাইন প্রাইভেট হাসপাতাল লিমিটেড, ওয়েসিস হাসপাতাল, নর্থ ইস্ট মেডিকেল কলেজ এন্ড হসপিটাল, পার্ক ভিউ হসপিটাল, জালালাবাদ রাগিব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতাল। এসব হাসপাতালগুলো রোগী ভর্তিতে অস্বীকৃতি জানায়। তবে এ্যাম্বুলেন্সে অক্সিজেন দিয়ে সহযোগিতা করেছে নগরীর সোবহানীঘাট বিশ্বরোডের মা ও শিশু হাসপাতাল। এমন অভিযোগ করেছেন সিলেট মহানগর ব্যবসায়ী ঐক্য কল্যাণ পরিষদের সভাপতি আব্দুর রহমান রিপন।

তিনি একজন নাগরিকের চিকিৎসার ব্যাপারে এরকম অবহেলার জন্য তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন, একজন সাধারণ রোগাক্রান্ত মানুষকে এখন এসব হাসপাতালগুলো করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত বলে প্রথমেই সন্দেহ প্রকাশ করে ভর্তি করতে অনিহা প্রকাশ করে। অথচ সরকারের নির্দেশ প্রত্যেক হাসপাতালে যেন সাধারণ রোগীদের চিকিৎসা নিশ্চিত করা হয়, কিন্তু তারা এসব বিধি-বিধানের কোন তোয়াক্কা করছে না। তিনি মানবিক কারনে সকল হাসপাতালে সাধারণ মানুষের চিকিৎসা নিশ্চিতের দাবি জানান।

অপরদিকে এক শোক বার্তায় তিনি মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারবর্গের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।