৩ বছর পর মার্কিন নৌ কর্মকর্তার মৃতদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ ডেস্ক: মৃত্যুর তিন বছর পর যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের ডালাসের একটি আবাসিক অ্যাপার্টমেন্ট থেকে রোনাল্ড ওয়েইন হোয়াইট নামে মার্কিন নৌবাহিনীর এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রোনাল্ডের পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ইতিপূর্বে কয়েক দফা তার নিখোঁজ থাকার ব্যাপারটি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছিল। খবর বিবিসি।রোনাল্ডের মা ডরিস স্টিভেনস যিনি নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ডে বসবাস করেন। তিন বছর আগে মারা যাওয়ার পূর্ব পর্যন্ত রোনাল্ডের সঙ্গে তার মায়ের নিয়মিত যোগাযোগ ছিল।

ডরিস স্টিভেনস সাংবাদিকদের জানান, তিনি কয়েকবারই পুলিশ বিভাগের কাছে তার ছেলের নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি নিয়ে গেছেন।কিন্তু প্রত্যেকবারই পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তার ছেলে প্রাপ্তবয়স্ক এবং ব্যবসায়ের কাজে প্রচুর ভ্রমণ করে থাকেন, তাই পুলিশের পক্ষে নিখোঁজ কেস চালু করা সম্ভব নয়।

ডালাসের একটি স্থানীয় টেলিভিশন চ্যানেলের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে ডরিস বলেন, এটি কীভাবে সম্ভব- আমার ছেলেটা তার অ্যাপার্টমেন্টে মরে তিন বছর পড়ে থাকল আর দুনিয়ার কেউ সেই খবর পেল না? কতদিন দুঃখ নিয়ে ঘুমিয়ে পড়েছি, কেউ আমার সন্তানকে খুঁজতে আমাকে বিন্দুমাত্র সহযোগিতাও করেনি।

অবশেষে ডিসোটো কমপ্লেক্সের একটি অ্যাপার্টমেন্ট ইউনিটে কেন দীর্ঘদিন ধরে পানি ব্যবহার করা হচ্ছে না, সে বিষয় তদন্ত করতে গিয়ে তিন বছর আগে মারা যাওয়া রোনাল্ডের মৃতদেহ আবিষ্কার করে কর্তৃপক্ষ।ওই কমপ্লেক্সের একজন স্টাফ সদর দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে তার মৃতদেহটি রান্নাঘরের কাছাকাছি পড়ে থাকতে দেখে।

২০১৬ সালে মারা যাওয়ার সময় রোনাল্ডের বয়স ছিল ৫১। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীতে একজন প্রতিরক্ষা ঠিকাদার হিসেবে কাজ করতেন। স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর থেকে তিনি ওই অ্যাপার্টমেন্টে একাই বসবাস করতেন। ব্যবসায়ের কাজে প্রায়শই তাকে যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে ভ্রমণ করতে হতো।

এদিকে রোনাল্ড হোয়াইট বসবাস করতেন অ্যাপার্টমেন্টের চার তলার উত্তরপশ্চিম কোণায়। দরজা-জানালা সবসময় বন্ধ থাকত। সে কারণেই হয়তো দীর্ঘদিন তার মৃত্যুর কথা কেউ জানতে পারেনি।পিট স্কাল্ট নামে এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বলেছেন, রোনাল্ডের বাড়িভাড়া মাসে মাসে তার একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে পরিশোধ করে দেয়ার ব্যবস্থা ছিল। এ কারণে বাসা ভাড়ার জন্য কেউ তার সঙ্গে যোগাযোগ করত না।