ফটো গ্যালারি

প্রিয়া সাহার বক্তব্য দেশ বিরোধী : ন্যাপ মহাসচিব

প্রিয়া সাহার বক্তব্য দেশ বিরোধী : ন্যাপ মহাসচিব \

নিজস্ব প্রতিবেদক: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নিকট বাংলাদেশের সংখ্যালঘু নির্যাতন নিয়ে প্রিয়া সাহার বক্তব্য সম্পূর্ণরুপে দেশ বিরোধী ও রাষ্ট্র বিরোধী বলে মন্তব্য করে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশের বিপক্ষে নালিশ চক্রান্ত ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। দেশের বিরুদ্ধে ভযানক ষড়যন্ত্র। ধর্মীয় সম্প্রীতির এক উজ্জ্বল দৃস্টান্ত বাংলাদেশ। অনেকেই ব্যক্তিস্বার্থে বা না বুঝে এটার ক্ষতি করে ফেলেন। সবার উচিত এ ধরনের কাজ থেকে বিরত থাকা।

শনিবার গণমাধ্যমে প্রেরিত এক প্রতিবাদ বার্তায় তিনি এসব কথা বলেন।তিনি বলেন, হাজার বছরের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ আমাদের বাংলাদেশ। সাম্প্রদায়িক বন্ধনের এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত আমাদের প্রিয় এই মাতৃভূমি। আমাদের প্রিয় দেশে আমরা সবাই অনুষ্ঠানে যাই, একসাথে খাই। এমনকি পাশাপাশি বাস করা এক পরিবারের পারিবারিক অনুষ্ঠানে আমরা একসাথে অংশ গ্রহন করি।ন্যাপ মহাসচিব বলেন, আমাদের ভাতৃত্ববোধ, আবহমান কাল ধরে চলে আসা এ’ সম্প্রীতি নষ্ট করতে কারা এখন কাজ করছে।

কারা নাটাইয়ের পেছনে সুতো ধরে পুতুল নাচের খেলা শুরু করেছে। দেশের বিরুদ্ধে কোথায় যেনো একটি গভীর ষড়যন্ত্রের আঁচ পাচ্ছি। এরা ধর্মীয় উত্তেজনা সৃষ্টি করা, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করা, হিন্দু-মুসলমানদের বিরাজমান সৌহার্দপূর্ণ এই পরিবেশকে ধ্বংস করার জন্যেই উঠে পড়ে লেগেছে।

তিনি বলেন, এইভাবেই একদিন ইষ্ট ইন্ডিয়া কোম্পানীকে ডেকে এনে এ’দেশের স্বাধীনতাকে দু’শ বৎসরের জন্যে তাদের হাতে তুলে দেয়া হয়েছিলো। যাদের জন্যে দু’শ বৎসরের গোলামী পুরো ভারতবর্ষের জনগণ ভোগ করেছিলো সেই মীর জাফর, ইয়ার লতিফ, ঘসেটি বেগম, রাজা রাজভল্লভ, উঁমিচাদ, জগৎশেঠ, রাজা নন্দকুমারদের বংশধরেরা এখনো এই দেশে বহাল তবিয়তে বসবাস করছে।

তিনি বলেন, এ’দেশের আলো-বাতাসে বড় হয়ে সুযোগ পেলেই দেশে কিংবা দেশের বাইরে গিয়ে দেশের বিরুদ্ধে উঠেপড়ে ষড়যন্ত্রে মেতে উঠে। এ’সব কিসের ইঙ্গিত। কার স্বার্থে করছে এসব। সরকারের উচিত অবিলম্বে এসকল ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত শক্তহাতে মোকাবেলা করা। অন্যথায় দেশ-জাতি ও রাষ্ট্রকে কঠিন মূল্য দিতে হতে পারে।

মন্তব্য করুন

আরো সংবাদ