ফটো গ্যালারি

কলাপাড়ায় ভাতিজাকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে চাচা

কলাপাড়ায় ভাতিজাকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে চাচা \

রাসেল কবির মুরাদ , কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি: ২০ জুলাই ঃ কলাপাড়ায় ধানখালী ইউনিয়নের লোন্দা গ্রামে পূর্ব বিরোধেকে কেন্দ্র করে মো: রুবেল মুন্সী (২৭) নামের এক কৃষক কে বাশের লাঠি ও লোহার রড দ্বারা এবং বগি দ্বারা কুপিয়ে মারাক্তক জখম করে এবং তার তলপেটে কেটে গেছে। তাৎক্ষনিক এলাকার লোকজন রক্তাক্ত, জখম অবস্থায় কলাপাড়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে কলাপাড়া হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: জুনায়েদ খান লেলীন জানান, রোগী বর্তমানে মোটামুটি সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরে গেছে।

আহত রুবেল মুন্সী জানান, তাদের বাড়ির বাশে একটি বাছুর গরু গলায় ফাস লেগে আক্রান্ত হইয়া ছটফট করিতে থাকিলে বাছুর পিটানো হয়েছে মনে করিয়া আসামীরা গায়ে পরিয়া ঝগড়া সৃষ্ট করে। ঝগড়ার এক পর্যায় আসামীরা উওেজিত হইয়া একজোট হইয়া পরিকল্পিতভাবে আমার উপর হামলা করে এবং আমার গলায় থাকা বিদেশী ১২ আনা ওজনের একটি স্বর্নের চেইন যার মুল্যে ৩৭,৫০০ টাকা জোর পূর্বক খুলিয়া নিয়া যায়। আহত রুবেল মুন্সীর বাবা মো: আলমাছ মুন্সী (৫৫) কলাপাড়া উপজেলা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেন, মামলা নং:- /১৯।

আসামী মোয়াজ্জেম মুন্সী সাংবাদিকদের জানান, আমি আমার ভাতিজাকে ইট দিয়ে গুতা মারছি। বগি দিয়া কোপ দেই নাই। স্থানিয়রা জানান, রুবেলকে রাস্তায় দোকান এর সামনে তার চাচা এবং সে গলাগলি ধরে পরে কান্নার আওয়াজ পাওয়া যায় লোকজন গিয়ে দেখে দুজনের গায়ে কাদা মাখা এবং রুবেল এর তলপেটে থেকে রক্ত বের হচ্ছে এবং তার চাচার নাকে মুখে খামছি মারছে তাতে রক্ত বের হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

আরো সংবাদ