ফটো গ্যালারি

ঈদের আগে-পরে ৬ দিন মহাসড়কে ভারী যানবাহন নিষিদ্ধ

প্রিয়া সাহার করা নালিশ ইস্যুতে ‘সরকার ব্যাকফুটে নয়’: কাদের

প্রিয়া সাহার করা নালিশ ইস্যুতে ‘সরকার ব্যাকফুটে নয়’: কাদের \

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নিপীড়ন নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে প্রিয়া সাহার করা নালিশ ইস্যুতে ‘সরকার ব্যাকফুটে নয়’ বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘প্রিয়া সাহার বক্তব্যের বিষয়টিকে গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। তিনি দেশে ফেরার পর তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। তার কাছে এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানতে চাওয়া হবে।’

সোমবার (২২ জুলাই) সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত সমসাময়িক ইস্যু নিয়ে মিডিয়া ব্রিফিংয়ে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের ডিস-অ্যাপিয়ার্ড অর্থাৎ ক্রমাগত হারিয়ে যাওয়ার যে পরিসংখ্যানগত চিত্র প্রিয়া সাহা তুলে ধরেছেন এবং তার স্বপক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যে উদ্ধৃতি টেনেছেন তা ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

কাদেন বলেন, ‘আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা কখনোই ‘৩ কোটি ৩৭ লাখ মিসিং’- এমন কথা বলেননি। এতে করে দেশকে ছোট করা হয়। প্রিয়া সাহার বক্তব্যের পেছনে অন্য কারও হাত আছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হবে। এছাড়া তার বক্তব্যে সাম্প্রদায়িক উস্কানির ইন্ধন আছে কিনা সেটিও খতিয়ে দেখা হবে।’

তিনি বলেন, ‘প্রিয়াকে তুচ্ছ বলে উড়িয়ে দেয়া যায় না। এখানে সাম্প্রদায়িক উস্কানি থাকতে পারে। কারও প্ররোচণায় তিনি সেটা করেছেন কিনা আমরা সেটা গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করতে চাই।’

তবে এ বিষয়টির সঙ্গে দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) চাকরিরত প্রিয়া সাহার স্বামীকে জড়াতে আপত্তি আছে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের। এক্ষেত্রে কাদেরের যুক্তি- ‘একই পরিবারে ভিন্ন মতাবলম্বী থাকতেই পারে।’

এর আগে, কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে যাতায়াত নির্বিঘ্ন রাখতে তার মন্ত্রণালয়ের পরিকল্পনা তুলে ধরে সড়কমন্ত্রী বলেন, ‘কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে সড়কে যানজট রোধে ট্রাক-লরি-কাভার্ডভ্যান ঈদের আগে তিন দিন এবং পরে তিন দিন চলবে না। এছাড়া ঈদের আগে সাত দিন এবং পরে তিন দিন ২৪ ঘণ্টা সিএনজি স্টেশনগুলো খোলা থাকবে।’

ঈদে গার্মেন্টস শ্রমিকরা যেন সহজে বাড়ি যেতে পারে সেজন্য বিআরটিসির বাস সার্ভিস চাইলে বিজিএমইএকে দেয়া হবে বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।

এর আগে গত ১৬ জুলাই ধর্মীয় নিপীড়নের শিকার ২৭ ব্যক্তির সঙ্গে বৈঠক করেন ট্রাম্প। সেখানে ১৬ দেশের প্রতিনিধিরা অংশ নেন। বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়াও মার্কিন প্রেসিডেন্টের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ পান।

সেখানে প্রিয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্পকে বলেন, আমি বাংলাদেশ থেকে এসেছি। দেশটিতে ৩ কোটি ৭০ লাখ হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান নিখোঁজ রয়েছেন। অনুগ্রহ করে আমাদের লোকজনকে সহায়তা করুন। আমরা আমাদের দেশে থাকতে চাই। এখনো সেখানে ১ কোটি ৮০ লাখ সংখ্যালঘু রয়েছেন। আমরা বাড়িঘর খুইয়েছি। তারা আমাদের বাড়িঘর পুড়িয়ে দিয়েছেন, ভূমি দখল করে নিয়েছেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো বিচার পাইনি।

মন্তব্য করুন

আরো সংবাদ