ফটো গ্যালারি

৫ম বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডের আঞ্চলিক পর্ব অনুষ্ঠিত

৫ম বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডের আঞ্চলিক পর্ব অনুষ্ঠিত \

এওয়ান নিউজ: কাতারের দোহায় অনুষ্ঠেয় ১৬তম আন্তর্জাতিক জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াড (আইজেএসও ২০১৯)-এর জন্যে বাংলাদেশ দল নির্বাচনের লক্ষ্যে আজ দেশের ৫টি বিভাগীয় শহর ও ১টী জেলা শহরে অনুষ্ঠিত হলআল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক ৫ম বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডের (বিডিজেএসও ২০১৯) আঞ্চলিক পর্ব। বিভাগগুলো হচ্ছে ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, রংপুর ও জেলা শহর নেত্রকোণা। এবারের বিডিজেএসও-এর আঞ্চলিক পর্ব অনুষ্ঠিত হচ্ছে দেশের আটটি বিভাগে। গত ২৬ জুলাই ২০১৯ তারিখে বরিশাল ও সিলেটের আঞ্চলিক পর্ব। এর পাশাপাশি উপজেলা পর্যায়ের ৪টি স্কুলে প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হয়েছে স্কুল অলিম্পিয়াড।এই আটটি আঞ্চলিক পর্ব ও চারটি স্কুল অলিম্পিয়াডে প্রায় সাত হাজার তিনশত শিক্ষার্থী অংশ নেয়।

জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডে শিক্ষার্থীরা অংশনেয় চারটি ক্যাটাগরিতে—প্রাইমারি (তৃতীয় থেকে পঞ্চম) জুনিয়র (ষষ্ঠথেকেঅষ্টম শ্রেণি), সেকেন্ডারি (নবমওদশম শ্রেণি) ওস্পেশাল (একাদশওদ্বাদশ শ্রেণি, ১জানুয়ারি২০০৪-এরপরযাদেরজন্ম)।১ ঘণ্টা ১৫ মিনিটের এই অলিম্পিয়াডে শিক্ষার্থীদের পদার্থ বিজ্ঞান, রসায়ন ও জীব বিজ্ঞানের তিনটি সমস্যার সমাধান করতে হয়।

আজ ঢাকার আঞ্চলিক অলিম্পিয়াডটি আয়োজিত হয় কলাবাগানের লেক সার্কাস বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে। এই অলিম্পিয়াডে ঢাকা ও আশেপাশের জেলাগুলোর৭০টি বিদ্যালয়ের প্রায় ৭০০ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। সকাল সাড়ে নয়টায় জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে অনষ্ঠান শুরু হয়। অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করেন আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও প্রধান জনসন সংযোগ কর্মকর্তা জনাব জালাল আহমেদ ও লেক সার্কাস উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব মোস্তফা কামাল। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন৫ম জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডের আহ্বায়ক মুনির হাসান। এদিকে চট্টগ্রাম অনুষ্ঠিত হয় একটি আঞ্চলিক উৎসব। এটি উদ্বোধন করেন সাইডার ইন্টার্নেশনাল স্কুলের প্রধান শিক্ষক নীতি ত্রিপাঠি।

প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের চট্টগ্রাম অঞ্চলের জোনাল হেড মোহাম্মদ আজম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের গনিত বিভাগের অধ্যাপক ড.উজ্জ্বল কুমার দেব। চট্টগ্রামের আঞ্চলিক উৎসবে প্রায় ৫০০ শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এদের থেকে ৪৫ জন শিক্ষার্থীদের বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। পুরষকার বিতরণ ও সমাপণী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রামের প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের তড়িৎ প্রকৌশল বুভাগের চেয়ারম্যান টোটন চন্দ্র মল্লিক। স্থানীয় ভাবে চট্টগ্রাম আঞ্চলিক উৎসবটি আয়োজন করে চট্টগ্রামের সামাজিক সংগঠন অব্যয়।

খুলনার আঞ্চলিক পর্ব উদবোধন করেন ফাতিমা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সিস্টার শিখা গোমেজ।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের খুলনা জোনাল অফিসের ভাইস প্রেসিডেন্ট জনাব ফেরদৌস হাসান। আরও উপস্থিত ছিলেন আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের খুলনা জোনাল অফিসের এস এ ভিপি ও দ্বিতীয় কর্মকর্তা জনাব সাজ্জাদুর রহমান।এই পর্ব থেকে ৪৩ জন শিক্ষার্থীকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। স্থানীয়ভাবে এই পর্ব আয়োজনে সহায়তা করে সত্যেনবসু বিজ্ঞান ক্লাব।

একই দিনে রাজশাহী অঞ্চলের অলিম্পিয়াডটি অনুষ্ঠিত হয়গভ. ল্যাবরেটরী হাই স্কুলে।এই অলিম্পিয়াডে রাজশাহী, বগুড়া, নওগাঁ, নাটোর, চাঁপাই নবাবগঞ্জের ৩২ টি বিদ্যালয়ের প্রায় ৩২০ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। অলিম্পিয়াডটি উদ্বোধন করেন আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক রাজশাহীব্রাঞ্চের প্রিন্সিপাল অফিসার জনাব আব্দুর রহমান।এই পর্বে ৩০জন শিক্ষার্থীকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।

রংপুর অঞ্চলের অলিম্পিয়াডটি অনুষ্ঠিত হয়রংপুরের ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজে।এইঅলিম্পিয়াডে অংশ নেয় রংপুর ও আশেপাশে জেলার ৪০টি স্কুলের প্রায় ৫০০ শিক্ষার্থী। অলিম্পিয়াডের উদ্বোধন করেনক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ রংপুরের অধ্যক্ষকর্নেল শামীম ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক রংপুর ব্রাঞ্চের ম্যানেজার মো: শাজেদুল ইসলাম।স্থানীয়ভাবে এই অলিম্পিয়াড আয়োজনে সহায়তা করেশো না ক্রিয়েটিভিটীর নামের একটি অর্গানাইজেশন।

এছাড়া নেত্রকোণার আঞ্চলিক অলিম্পিয়াডটী উদ্বোধন করেন আঞ্জুমান আদর্শ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক স্বপ্না রাণী সরকার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক নেত্রকোণা ব্রাঞ্চের ব্যাবস্থাপক শাহ মো: বাকি বিল্লাহ এবং সহ ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান। এই অলিম্পিয়াডে ময়মসিংহ বিভাগের ৬ জেলার ৪০০ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। নেত্রকোণা আঞ্চলিক অলিম্পিয়াড আয়োজনে স্থানীয় ভাবে সহায়তা করে নেত্রকোণার বিজ্ঞান ক্লাব “ম্যাসন”।

আজকে অনুষ্ঠিত সব আঞ্চলিক অলিম্পিয়াডের ফলাফল বিডিজেএসও-র ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। সকল আঞ্চলিক পর্ব ও স্কুল অলিম্পিয়াডের বিজয়ীদের তালিকা বিডিজেএসও-এর ওয়েবসাইটে (www.bdjso.org) পাওয়া যাবে। এছাড়া আগামী ৫ আগস্ট অনলাইনে অনুষ্ঠিত হবে একটি ই-অলিম্পিয়াড। ই-অলিম্পিয়াড থেকে ৪০ জনকে জাতীয় পর্বের জন্য বিজয়ী করা হবে। ই-অলিম্পিয়াডের রেজিস্ট্রেশন সংক্রান্ত তথ্য পাওয়া যাবে bdjso.org/eOlympiad এই ওয়েবসাইটে।

বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াড এবার আয়োজিত হচ্ছে ৫ম বারের মত। আটটি আঞ্চলিক পর্ব, ই-অলিম্পিয়াড ও স্কুল অলিম্পিয়াডের বিজয়ীরা অংশ নেবে ঢাকায় অনুষ্ঠেয় জাতীয় পর্বে। জাতীয় পর্বের বিজয়ীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হবে ৫ম বিডিজেএসও ক্যাম্প। বিডিজেএসও ক্যাম্পের সেরাদের নিয়ে আয়োজিত হবে এক্সটেনশন ক্যাম্প। সেখান থেকে বাছাই করা হবে কাতারের দোহায় ডিসেম্বরে অনুষ্ঠেয় ১৬তম আন্তর্জাতিক জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডের ছয় সদস্যের বাংলাদেশ দল।

বিডিজেএসওযৌথভাবেআয়োজনকরছেবাংলাদেশবিজ্ঞানজনপ্রিয়করণসমিতি (এসপিএসবি)ওবাংলাদেশফ্রিডমফাউন্ডেশন (বিএফএফ)।আয়োজনটিরপৃষ্ঠপোষকআল-আরাফাহ্ইসলামীব্যাংকলিমিটেড। সহযোগী হিসেবে আছে দৈনিক প্রথমআলো। ম্যাগাজিন পার্টনার কিশোর আলো ও বিজ্ঞানচিন্তা।টেলিভিশন পার্টনার নাগরিক টিভি, কমিউনিকেশন পার্টনার বিজ্ঞান বাক্সো ও নলেজ পার্টনার ম্যাসল্যাব।

অলিম্পিয়াডেরবিস্তারিততথ্যপাওয়াযাবে বিডিজেএসও-র ওয়েবসাইট www.bdjso.orgএবং ফেইসবুক পেইজ www.facebook.com/bdjsoএ।
যোগাযোগ: মাহমুদ মীম, সমন্বয়ক, বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াড, মোবাইল: ০১৬৭১১৫৯৪৩৫।

মন্তব্য করুন

আরো সংবাদ