ফটো গ্যালারি

সরকারের প্রতি বিএফইউজে-ডিইউজে

‘নায়াবকে দাঁতভাঙ্গা জবাব দিয়ে ৯ম ওয়েজবোর্ড রোয়েদাদ ঘোষণা করুন’

‘নায়াবকে দাঁতভাঙ্গা জবাব দিয়ে ৯ম ওয়েজবোর্ড রোয়েদাদ ঘোষণা করুন’ \

নিজস্ব প্রতিবেদ: ৯ম ওয়েজবোর্ড রোয়েদাদের গেজেট ঘোষণার আগ মুহূর্তে নোয়াবের মামলাসহ ঘৃণ্য কর্মকাণ্ডের নিন্দা জানিয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়কে এ বিষয়ে জরুরি পদক্ষেপ নেওয়ার আহবান জানিয়েছেন বিএফইউজে ও ডিইউজে নেতারা। একই সঙ্গে আগামী ১৭ আগস্টের মধ্যে ওয়েজবোর্ড রোয়েদাদের গেজেট প্রকাশের দাবি জানানো হয় সরকারের প্রতি।

আজ বৃহস্পতিবার (০৮ আগস্ট ২০১৯) সকালে বিএফইউজে-বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) এক যৌথ বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে এ দাবি জানান সাংবাদিক নেতারা। বিএফইউজে সভাপতি মোল্লা জালালের সভাপতিত্বে নবম ওয়েজবোর্ড রোয়েদাদের গেজেট প্রকাশ, গণমাধ্যম কর্মী আইন পাস, সংবাদপত্রে ঢালাও ছাঁটাই বন্ধ ও সাংবাদিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

ডিইউজের যুগ্ম সম্পাদক আকতার হোসেনের পরিচালনায় সমাবেশে সাংবাদিক-শ্রমিক-কর্মচারি নেতারা নোয়াবের অনৈতিক কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করে বলেন, যখনই সাংবাদিক সমাজের বেতন-ভাতা বৃদ্ধির জন্য সরকার সক্রিয় হয় তখনই নোয়াব মামলা করে তা ঠেকানোর চেষ্টা করে। কিন্তু সাংবাদিক-শ্রমিক-কর্মচারিদের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের কাছে নোয়াব পরাজিত হয়। নেতারা নোয়াবের এই ষড়যন্ত্র প্রতিহত করার জন্য তথ্য মন্ত্রণালয়কে ত্বরিৎ পদক্ষেপ নেওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, সংবাদপত্রের মালিকরূপী নির্যাতনকারীদের সংগঠন নোয়াবকে দাতভাঙ্গা জবাব দিয়ে ৯ম ওয়েজবোর্ড রোয়েদাদ ঘোষণা করতে হবে।

সমাবেশে নেতারা হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, যারা অভিভাবকতুল্য হয়েও দায়িত্ব পালন না করে নির্ভরশীলদের পাওনা কেড়ে নেন সেসব অভিভাবকদের ত্যাগ করে; প্রয়োজন হলে প্রতিহত করা হবে। বক্তারা বলেন, নোয়াব নেতারা সাংবাদিক-শ্রমিক-কর্মচারীদের বরাবরই অবজ্ঞা-অবহেলা করেন। নানা ধরনের হয়রানি ও নির্যাতন করেন। এর বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে সংগ্রাম করে অধিকার আদায় করতে হবে।

সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএফইউজের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আবদুল মজিদ, ডিইউজের সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী, বাংলাদেশ সংবাদপত্র কর্মচারি ফেডারেশনের সভাপতি মতিউর রহমান তালুকদার, মহাসচিব খায়রুল ইসলাম, বাংলাদেশ সংবাদপত্র প্রেস ফেডারেশনের সভাপতি আলমগীর হোসেন খান, মহাসচিব কামাল উদ্দিন, ডিআরইউর সাধারণ সম্পাদক কবির আহমেদ খান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ, ঢাকা সাব এডিটরস কাউন্সিলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, ডিইউজের নির্বাহী পরিষদ সদস্য শাহনাজ পারভীন এলিস, ডিইউজে বাসসের ডেপুটি ইউনিট চিফ তানভীর আলাদীন, ইনসানিয়াত ইউনিট চিফ খোরশেদ আলম, সিনিয়র সাংবাদিক মানিক লাল ঘোষ।সমাবেশে বিএফইউজে, ডিইউজে, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) ঢাকা সাব এডিটরস কাউন্সিলসহ সাংবাদিক-শ্রমিক-কর্মচারিদের সকল সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

কর্মসূচী :
আগামী ১৭ আগস্টের মধ্যে নবম ওয়েজবোর্ড রোয়েদাদের গেজেট প্রকাশ করা না হলে ১৮ আগস্ট সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে একই দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করবে বিএফইউজে ও ডিইউজে। সমাবেশ শেষে তথ্য মন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করার কথা ঘোষণা করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আরো সংবাদ