ফটো গ্যালারি

চেলসিকে টাইব্রেকারে হারিয়ে শিরোপা ঘরে তুললো লিভারপুল

চেলসিকে টাইব্রেকারে হারিয়ে শিরোপা ঘরে তুললো লিভারপুল \

স্পোর্টস ডেস্ক: নির্ধারিত সময় ও অতিরিক্ত সময়ে দু’দল সমতায় থাকায় ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। যেখানে চেলসিকে ৫-৪ গোলে হারিয়ে উয়েফা সুপার কাপের শিরোপা ঘরে তোলে লিভারপুল। এর আগে ২-২ গোলে সমতা ছিল। তবে টাইব্রেকারে ট্যামি আব্রাহামের শটটি ঠেকিয়ে অল রেডসদের চ্যাম্পিয়নের মুকুট এনে দেন গোলরক্ষক আদ্রিয়ান।

বুধবার তুরস্কের ইস্তানবুলে ইউরোপের এই সুপার কাপে মুখোমুখে হয় ইংলিশ দুই জায়ান্ট লিভারপুল ও চেলসি। চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ী (লিভারপুল) ও উয়েফা ইউরোপা লিগ জয়ীর (চেলসি) মধ্যে প্রতি মৌসুমে শুরুর দিকে এই ম্যাচটি হয়ে থাকে। যেখানে ইতিহাসে প্রথমবারের মতো দুই ইংলিশ ক্লাব মাঠে নামল।

ম্যাচে প্রথমার্ধে অবশ্য চেলসিই এগিয়ে গিয়েছিল। অলিভার জিরুদের গোলে লিড পায় ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ডে শিষ্যরা। তবে বিরতির পর রবার্তো ফিরমিনো বদলি হিসেবে মাঠে নেমে খেলার চিত্র পাল্টে দেন। তার দারুণ দক্ষতায় সাদিও মানে গোল করলে সমতায় ফেরে চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ীরা।

নির্ধারিত সময়ে ১-১ গোলে সমতা থাকায় ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। যেখানে ৯৫ মিনিটে নিজের জোড়া গোল পূর্ণ করে লিভাপুলকে এগিয়ে দেন সেনেগাল তারকা মানে। তবে ১০১ মিনিটে চেলসির জর্জিনহো পেনাল্টি থেকে গোল করলে ২-২ গোলে শেষ করে ব্লুজরা।

টাইব্রেকারে লিভারপুলের পাঁচটি শটেই গোল হয়। তবে চেলসির আব্রাহামের শট বাঁচিয়ে জয়ের নায়ক বনে যান নিয়মিত গোলরক্ষক আলিসনের পরিবর্তে সুযোগ পাওয়া আদ্রিয়ান।

লিভারপুল এ নিয়ে চতুর্থ সুপার কাপ জিতল। বার্সেলোনা ও এসি মিলান এই শিরোপা সর্বোচ্চ পাঁচটি করে জিতেছে। আর চেলসি আসরটির তৃতীয়বার রানার্সআপ হলো। যেখানে বার্সা ও সেভিয়া চারবার করে রানার্সআপ হয়েছিল।

মন্তব্য করুন

আরো সংবাদ