ফটো গ্যালারি

বাগেরহাটে পশ্চিম মঘিয়া ও কাঠালিয়া রাস্তায় চলাচলে চরম দূর্ভোগ

বাগেরহাটে পশ্চিম মঘিয়া ও কাঠালিয়া রাস্তায় চলাচলে চরম দূর্ভোগ \

বাগেরহাট প্রতিনিধি: বাগেরহাট জেলার কচুয়া উপজেলার মঘিয়া টু কাঠালিয়া এবং পশ্চিম মঘিয়া টু সান-পুকুরিয়ার ইটসলিং রাস্তা দুটি এলাকার মানুষের গলার কাটায় পরিনত হয়েছে। রাস্তা দুটি দীর্ঘ দিন ধরে সলিং উঠে ভেঙ্গে খানা-খন্দকে ভরে জন চলাচলে চরম দূর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে। অবহেলিত এই রাস্তা দুটির দিকে কোন জন-প্রতিনিধি বা সং¯িøষ্ট কতৃপক্ষের কোন নজর নেই। চলাচলে ব্যাহত হচ্ছে স্কুল পড়–য়া কোমল মতি শিশু-কিশোরদের।

এই রাস্তা দুটি দিয়ে প্রতিদিন সহ¯্রাধিক লোক দুর্ভোগের সাথে চলাচল করলেও নজর নেই কোন জনপ্রতিনিধি বা কর্তৃপক্ষের। এলাকাবাসি এ দুর্ভোগ লাঘবের আশায় জন-প্রতিনিধিদের দারে দারে ঘুরেও কোন প্রতিকার পাচ্ছে না। কচুয়া উপজেলার মঘিয়া ইউনিয়নের কাঠালিয়া ও সান পুকুরিয়া গ্রামের ইটসলিং রাস্তা ভাঙ্গা ও খানা-খন্দকে ভরা চলাচলে দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে স্কুল পড়–য়া ছাত্র-ছাত্রীসহ এলাকাবাসীর। জরুরী কোন ব্যাক্তির চিকিৎসার জন্য এম্বুলেন্সে যাওয়া তো দুরের কথা খানাখন্দ ও সলিংয়ের ইট উঠে গিয়ে পায়ে হেটে চলাচলই দুসাধ্য হয়ে পড়েছে।

জেলার কচুয়া উপজেলার মঘিয়া কাঠালিয়া গ্রামের তারা পদ কুন্ডু, বিশ্বজিৎ কুন্ডু, পরিতোষ শিকদার, গৌতম শিকদার, উত্তম কুমার কুন্ডু, বরুন কুন্ডু, রবিনসহ আরো অনেকে বলেন, প্রতি বছর তালেশ্বর কাঠালিয়া স্কুলের সামনে সনাতন ধর্মালম্বিদের উৎসব বারুনি স্ন্যানে পূন্নার্থীরা পূর্ণের আশায় হাজার হাজার মানুষ জড়ো হয় এই ¯œ্যানে। তাদের মধ্যে বেশীর ভাগ লোকই বয়বৃদ্ধ। রাস্তার এই দুরবস্থায় তাদের আসা যাওয়ায় খুবই কষ্ট হয়। কাধেঁ চড়িয়ে আনা নেওয়া করতে হয়। এছাড়া আমাদের গ্রামের মধ্যে কালি মন্দির ছাড়াও ২ টি মন্দির আছে ও একটি প্রাইমারি স্কুল রয়েছে এবং ৫ শতাধিক লোকের বসাবাস এই গ্রামে।

পশ্চিম মঘিয়া টু সানপুকুরিয়া গ্রামের মোস্তফা, ভ্যানচালক আকরাম, ওবায়দুল, চাকুরী জীবি আলমগীর শেখ, সেলিম হাওলারসহ অনেকে জানায়, অত্র গ্রামে আসা যাওয়ার একমাত্র রাস্তাটির বেহাল দশায় সাধারণ মানুষের চলাচল দূর্বিসহ হয়ে ওঠে। এই রাস্তা দিয়ে দিনে পাঁচশতাধীক লোক যাতায়েত করে থাকে। প্রায় দেড় কিলোমিটার ভাঙ্গাচোরা রাস্তার বিভিন্ন স্থানে খানা-খন্দকে বৃষ্টি বা জোয়ারের পানি জমে কাদা মাটিতে একাকার হয়ে যায়। ফলে দূর্ভোগে পড়ে শিক্ষার্থী সহ সাধারণ মানুষ। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মেম্বার উপজেলা চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপির কাছে অনুরোধ করেও কোন লাভ হয় নাই।
রাস্তা দুটি সংস্কার বা পুনঃনির্মানে বাগেরহাট-২ আসনের বর্তমান এমপির হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভুক্তভোগী এলাকার লোক-জন।

মন্তব্য করুন

আরো সংবাদ