ফটো গ্যালারি

ফুটপাতে উঠে গেল বাস, পা বিচ্ছিন্ন হলো বিআইডব্লিউটিএ’র নারী কর্মকর্তার

ফুটপাতে উঠে গেল বাস, পা বিচ্ছিন্ন হলো বিআইডব্লিউটিএ’র নারী কর্মকর্তার \

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকার বাংলামোটরে ফুটপাতে দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থায় বাসের নিচে চাপা পড়ে পা হারালেন সরকারি এক নারী কর্মকর্তা। মঙ্গলবার দুপুরের পরের এই ঘটনার জড়িত বাসটি আটক করা হলেও এর চালক পালিয়ে গেছেন বলে পুলিশ জানিয়েছে।

আহত কৃষ্ণা রায় (৫২) বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) সহকারী ব্যবস্থাপক (অর্থ) পদে কর্মরত। তার বাসা পুরান ঢাকার টিকাটুলীতে। অফিস শেষে বাসে উঠতে বাংলামোটরে সড়কের পূর্ব পাশের ফুটপাতে তিনি দাঁড়িয়েছিলেন। ওই সময় শাহবাগমুখী ট্রাস্ট পরিবহনের একটি বাস ফুটপাতে উঠে গেলে তার নিচে কৃষ্ণা চাপা পড়েন বলে সহকর্মীরা জানিয়েছেন।

বিআইডব্লিউটিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম মিশা বলেন, “ট্রাস্ট পরিবহনের একটি বাস সড়ক থেকে ফুটপাতে উঠে কৃষ্ণা রায়কে চাপা দেয়। উনার বাঁ পায়ে প্রচণ্ড আঘাত লাগে।” কৃষ্ণাকে প্রথমে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়, সেখান থেকে পাঠানো হয় পঙ্গু হাসপাতালে। খবর শুনে বিআইডব্লিউটিসির চিকিৎসকরাও হাসপাতালে ছুটে যান।

বিআইডব্লিউটিসির প্রধান চিকিৎসা কর্মকর্তা খন্দকার মাসুম হাসান বলেন, “কৃষ্ণা রায়ের বাঁ পায়ের হাঁটুর নিচ থেকে কেটে ফেলতে হয়েছে। এছাড়া মাথায় ছোট দুটি সেলাই করতে হয়েছে।”

এ বিষয়ে হাতিরঝিল থানার ওসি আবদুর রশিদ বলেন, “প্রাথমিকভাবে জানা গেছে ব্রেক ফেল করে বাসটি ফুটপাতে উঠে পড়ে। বাসটি আটক করা হয়েছে। তবে এর চালক এবং হেলপার পালিয়ে গেছে।”এই ঘটনায় রাত ৮টা পরর্যন্ত থানায় কেউ অভিযোগ করেননি। “অভিযোগ পেলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে”, বলেন ওসি।

বিআইডব্লিউটিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা নজরুল জানান, কৃষ্ণা রায়ের স্বামীর নাম রাধে দেব। তাদের এক ছেলে এক মেয়ে রয়েছে। তাদের বাড়ি মানিকগঞ্জে।

মন্তব্য করুন

আরো সংবাদ