ফটো গ্যালারি

চট্টগ্রাম-চুয়াডাঙ্গায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ যুবক নিহত

চট্টগ্রাম-চুয়াডাঙ্গায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ যুবক নিহত \

এওয়ান নিউজ ডেস্ক: চট্টগ্রাম বাঁশখালীতে ও চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ অন্তত ২ জন নিহত হয়েছে। আজ শুক্রবার সকালে ও বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম বাঁশখালীতে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মো. ইরান (৩৫) নামে এক জলদস্যু নিহত হয়েছে। নিহত মো. ইরান পূর্ব চাম্বল এলাকার মো. সিরাজ প্রকাশ সিরাজ ফকিরের ছেলে। আজ শুক্রবার সকাল সোয়া ৮টার দিকে বাঁশখালীর পূর্ব চাম্বল এলাকায় এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে।

র‌্যাব-৭ এর মিডিয়া অফিসার সহকারী পু্লিশ সুপার মো. মাশকুর রহমান গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বাঁশখালীর পূর্ব চাম্বল এলাকায় সকাল সোয়া ৮টার দিকে র‌্যাবের টহল দলের সঙ্গে জলদস্যুদের বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। পরে ঘটনাস্থল থেকে একজনের গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করা হয়।ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তলসহ ১৩টি অস্ত্র, গুলি ও দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

ঘটনাস্থলে থাকা র‌্যাব-৭ এর চান্দগাঁও ক্যাম্প কমান্ডার মেজর মেহেদী হাসান বলেন, ইরান কুখ্যাত জলদস্যু। তার বিরুদ্ধে খুন, ডাকাতিসহ বিভিন্ন অভিযোগে ১০টির মতো মামলা রয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা: চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় ‘দুই দল মাদক চোরাকারবারির’ সঙ্গে ‘ত্রিমুখী বন্দুকযুদ্ধে’ একজন নিহত হওয়ার খবর দিয়েছে পুলিশ। নিহতের নাম রোকনুজ্জামান রোকন। সে দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা দক্ষিণ চাঁদপুরের আবু বক্কর সিদ্দিকীর ছেলে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে গ্রামের একটি বাঁশবাগানের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে।

দামুড়হুদা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস জানান, ‘বৃহস্পতিবার রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার জয়রামপুর কাঁঠালতলা এলাকার একটি বাঁশবাগানে আধিপাত্য নিয়ে দু’দল মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে গোলাগুলি শুরু হয়। খবর পেয়ে পুলিশের একটি টহল দল ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। এ সময় দুই পক্ষই পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়লে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। শুরু হয় পুলিশ ও মাদক ব্যবসায়ীদের মধ্যে ত্রিমুখী বন্দুকযুদ্ধ। প্রায় আধাঘণ্টাব্যাপি গুলিবিনিময়ের পর মাদক ব্যবসায়ীরা পিছু হটে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে রোকরুজ্জামান নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। একই সাথে ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশীয় এলজি, দুইটি কার্তুজ, একবস্তা ফেনসিডিল ও দুইটি রাম দা উদ্ধার করা হয়েছে বলে দাবি পুলিশের। গুলিবিদ্ধ রোকনকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

মন্তব্য করুন

আরো সংবাদ