ফটো গ্যালারি

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়োগে হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়োগে হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ \

এওয়ান নিউজ: স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একটি প্রকল্পে চিকিৎসকসহ বিভিন্ন পদে ১৪৩ জন নিয়োগে জারি করা সার্কুলার তিন মাসের জন্য স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে গত ১৮ আগস্ট প্রকাশিত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী অনলাইন আবেদনের কার্যক্রম কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।

এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমান ও বিচারপতি মোহাম্মদ আলীর হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। চার সপ্তাহের মধ্যে স্বাস্থ্য সচিব, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, ইউজিসির চেয়ারম্যানসহ সাতজনকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম তালিকায় না থাকায় ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থী ডা. আব্দুল্লাহ আল মামুন ও ডা. মোহাম্মদ ইউনুছ হাইকোর্টে রিট করেন। আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করে এবিএম আলতাফ হোসেন। তাকে সহযোগিতা করেন কামরুজ্জামান কাকন ও শুভজিৎ ব্যানার্জি। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল প্রতীকার চাকমা।

পরে এবিএম আলতাফ হোসেন বলেন, ‘গত ১৮ আগস্ট দৈনিক সমকাল পত্রিকায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে একটি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয়। ওই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে ইউনানি আয়ুর্বেদিক চিকিৎসকসহ বিভিন্ন পদে ১৪৩ জন নিয়োগের কথা বলা হয়। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি অনুসারে অনলাইনে আবেদন করার সময় বিজ্ঞপ্তিতে হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম না থাকায় ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের থেকে পাস করা চিকিৎসকেরা ব্যর্থ হয়। পরে তারা নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি চ্যালেঞ্জ করে রিট করে। আদালত রিটের শুনানি নিয়ে তিন মাসের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির কার্যক্রম স্থগিত করেন। পাশাপাশি রুল জারি করেন।

মন্তব্য করুন

আরো সংবাদ