ফটো গ্যালারি

নতুন প্রজন্মকে বেশি করে জামদানি কেনা-পরার আহ্বান শিক্ষামন্ত্রীর

নতুন প্রজন্মকে বেশি করে জামদানি কেনা-পরার আহ্বান শিক্ষামন্ত্রীর \

এওয়ান নিউজ: নতুন প্রজন্মকে বেশি করে জামদানি শাড়ি কেনা এবং পরার আহ্বান জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, জামদানি যেখানে উপস্থাপন হয়, সেখানে বাংলাদেশকে উৎকৃষ্টভাবে উপস্থাপন করা হয়। আর জামদানি না কিনলে, না পরলে এ শিল্পকে বাঁচানো যাবে না।

শুক্রবার (৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর বেঙ্গল শিল্পালয়ে আয়োজিত পাঁচ সপ্তাহব্যাপী জামদানি উৎসব উদ্বোধনের সময় শিক্ষামন্ত্রী এ আহ্বান জানান।বাংলাদেশ কারুশিল্প পরিষদের সভাপতি মো. রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে ওয়ার্ল্ড ক্রাফট কাউন্সিল এশিয়া প্যাসিফিক রিজিয়নের প্রেসিডেন্ট ড. গাদা হিজাউয়ি-কাদুমি, বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান আবুল খায়ের প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ডা. দীপু মনি বলেন, আমি যখন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলাম। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে অনেক দেশ সফরে গেছি। দু’জনেই জামদানি পরে যেতাম। সবাই অবাক হয়ে জিজ্ঞেস করতো, এটা কী পরেছো? আমরা গর্বের সঙ্গে জামদানির কথা বলেছি। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জামদানির গৌরবময় মর্যাদা তুলে ধরতে কাজ করছেন। কারিগরদের সহায়তা করতে এবং জামদানিকে বাঁচাকে সরকার একটি প্রকল্পও নিচ্ছে।

দীপু মনি আরও বলেন, এরই মধ্যে বাংলাদেশের জামদানি বয়নশিল্পকে ‘ইনট্যানজিবল কালচারাল হেরিটেজ’ হিসেবে ঘোষণা করেছে ইউনেস্কো। এটি এরই মধ্যে ভৌগোলিক সূচক হিসেবেও সম্মান এনে দিয়েছে। তাই আমিও চাই নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওকে ওয়ার্ল্ড ক্রাফট সিটি ঘোষণা করা হোক।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের (নাসিক) মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, জামদানি শিল্পের বিকাশে যেকোনো সহায়তা করবো। এ শিল্পকে বিশ্বের কাছে তুলে ধরার জন্য সব ব্যবস্থা নিতে হবে।

অনুষ্ঠানে পাঁচ সেরা কারিগরকে সম্মাননা তুলে দেওয়া হয়। উৎসবটি যৌথভাবে আয়োজন করেছে বেঙ্গল ফাউন্ডেশন ও বাংলাদেশ কারুশিল্প পরিষদ। যা আগামী ১২ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে। সাপ্তাহিক ছুটি থাকবে প্রতি রোববার। মোট ৩০টি জামদানি প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করেছে আড়ং, অরণ্য, কুমুদিনী হ্যান্ডিক্রাফট ও টাঙ্গাইল শাড়ি কুটির।

মন্তব্য করুন

আরো সংবাদ