ফটো গ্যালারি

এবার টি-টোয়েন্টিতেও ৪ বলে ৪ উইকেট মালিঙ্গার

এবার টি-টোয়েন্টিতেও ৪ বলে ৪ উইকেট মালিঙ্গার \

স্পোর্টস ডেস্ক: ওয়ানডেতে একমাত্র বোলার হিসেবে চার বলে ৪ উইকেট নেওয়ার রেকর্ডের মালিক তিনি আগে থেকেই। এবার সেই কীর্তি গড়লেন টি-টোয়েন্টিতে। একই সঙ্গে প্রথম বোলার হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম সংস্করণে দুই হ্যাটট্রিকের অনন্য নজির গড়লেন লাসিথ মালিঙ্গা।

নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে পাল্লেকেলেতে শুক্রবার তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষটিতে নিজের দ্বিতীয় ওভারের শেষ চার বলে ৪ উইকেট নেন মালিঙ্গা। চারটিই ছিল ভয়ঙ্কর ইয়র্কার।

কলিন মানরোর ব্যাট-প্যাডের ফাঁক গলে বল আঘাত করে স্টাম্পে। সেই শুরু। পরের বল লাগে হামিশ রাদারফোর্ডের প্যাডে। জোরালো আবেদনে আম্পায়ার সাড়া না দিলে রিভিউ নেন মালিঙ্গা। দেখা যায় বল আঘাত হানত স্টাম্পে।

তৃতীয় শিকার কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম। নিখুঁত ইয়র্কার শেষ মুহূর্তে সুইং করে ভেঙে দেয় অফ স্টাম্প। হ্যাটট্রিকের উল্লাসে মেতে ওঠেন ৩৬ বছর বয়সী পেসার।

এর আগে ২০১৭ সালের এপ্রিলে কলম্বোতে বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি হ্যাটট্রিকটি করেছিলেন মালিঙ্গা। টানা তিন বলে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন মুশফিকুর রহিম, মাশরাফি বিন মুর্তজা ও মেহেদী হাসান মিরাজকে।

এবার আর হ্যাটট্রিক করে থামেননি। ওভারের শেষ বলে রস টেইলরকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে চার বলে ৪ উইকেটের অনন্য কীর্তি গড়েন কদিন আগে ওয়ানডে থেকে অবসর নেওয়া মালিঙ্গা।

পরের ওভারে টিম সেইফার্টকে ফিরিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো পাঁচ উইকেট পূর্ণ করেন মালিঙ্গা। এদিন ৫ উইকেট নিতে খরচ করেন মাত্র ৬ রান। টি-টোয়েন্টিতে তার মোট উইকেট হলো ১০৪টি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের যেকোনো সংস্করণে চার বলে ৪ উইকেট নেওয়ার প্রথম ঘটনা ঘটেছিল ২০০৭ ওয়ানডে বিশ্বকাপে। দক্ষিণ আফ্রিকার চার ব্যাটসম্যানকে টানা চার বলে ফিরিয়েছিলেন মালিঙ্গা। সেদিন অবশ্য দুই ওভার মিলিয়ে কীর্তিটি গড়েছিলেন তিনি। ৪৫তম ওভারের শেষ দুই বলে শন পোলক ও অ্যান্ড্রিউ হলকে ফেরানোর পর ৪৭তম ওভারের প্রথম দুই বলে জ্যাক ক্যালিস ও মাখায়া এনটিনিকে আউট করেছিলেন মালিঙ্গা।

ওয়ানডেতেও সর্বোচ্চ হ্যাটট্রিকের মালিক মালিঙ্গা, তিনটি। ৫০ ওভারের ক্রিকেটের ইতিহাসে দুটির বেশি হ্যাটট্রিক নেই আর কারও। সেই তিন হ্যাটট্রিকের প্রথমটি হলো দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বিশ্বকাপের ওই ম্যাচ।

মন্তব্য করুন

আরো সংবাদ