ফটো গ্যালারি

বৃষ্টি ও বাংলাদেশকে হারিয়ে আফগানদের স্মরণীয় জয়

বৃষ্টি ও বাংলাদেশকে হারিয়ে আফগানদের স্মরণীয় জয় \

স্পোর্টস ডেস্ক: শেষ উইকেটে দরকার ছিল ৩.৩ ওভার টিকে থাকা। উইকেটে ছিলেন সৌম্য সরকার ও নাঈম হাসান। কিন্তু রশিদ খানের ঘূর্ণিতে ঠিকই কাবু হলেন সৌম্য। দিনের দুই তৃতীয়াংশ খেলা বৃষ্টির কারণে বন্ধ থাকলেও আফগানিস্তানের বিপক্ষে লজ্জাজনক হার থেকে বাঁচতে পারলনা বাংলাদেশ। চট্টগ্রামে এক মাত্র টেস্টে ২২৪ রানের ঐতিহাসিক জয় তুলে নিয়েছে আফগানরা।

সোমবার (০৯ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে শেষদিনে দ্বিতীয় ইনিংসে ৬১.৪ ওভারে ১৭৩ রানেই গুটিয়ে গেছে বাংলাদেশ। আগেরদিন ৬ উইকেটে ১৩৬ রান করেছিল স্বাগতিকরা। আফগানদের দেওয়া ৩৯৮ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং বিপর্যয়ের পড়া বাংলাদেশ হারের মুখে পড়ে চতুর্থদিনেই। তবে শেষ মুহুর্তে বৃষ্টি রক্ষা করে টাইগারদের।

সফরকারীদের বিপক্ষে হারের লজ্জা এড়াতে চতুর্থ দিনের অপরাজিত দুই ব্যাটসম্যান সাকিব আল হাসান ও সৌম্য পঞ্চম দিন শুরু করেছিলেন। কিন্তু ১৩ বলের পর পুনরায় বৃষ্টি নেমে আসে চট্টগ্রামে। যার কারণে দীর্ঘক্ষণ বন্ধ ছিল ম্যাচটি। বৃষ্টি থামলে ফের মাঠে নামে দু’দল। ৪ উইকেট হাতে থাকা বাংলাদেশের ড্রয়ের জন্য দরকার ছিল ১৮.৩ ওভার টিকে থাকা। কিন্তু তাও পারল না টাইগাররা।

বৃষ্টির পর প্রথম বলেই জহির খানের বলে সাজঘরে ফেরেন সাকিব (৪৪)। দলের সংগ্রহ তখন ১৪৩ রান। এরপর টিকে থাকার আভাস দিয়েও রশিদ খানের বলে এলবিডব্লিউ’র শিকার হোন মেহেদী হাসান মিরাজ (১২)। তাইজুল ইসলামকেও (০) ফেরান রশিদ। শেষ মুহুর্তে কেবল ভরসা ছিলেন সৌম্য ও নাঈম হাসান।

রশিদ আগেই হুমকি দিয়ে রেখেছিলেন এক ঘণ্টা সময় পেলেই বাংলাদেশকে হারাতে পারবে আফগানিস্তান। তাই সত্যি হলো। আফগান অধিনায়কই সৌম্যকে (১৫) আউট করে ঐতিহাসিক জয়ের আনন্দে মেতে ওঠেন।

এই নিয়ে দশ টেস্ট খেলুড়ে দেশের বিপক্ষে হারের রেকর্ড গড়ল বাংলাদেশ। দুই ইনিংসে ১১ ‍উইকেট ও এক ফিফটিতে ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছে রশিদ খান। আফগানিস্তান প্রথম ইনিংসে করে ৩৪২ রান। ২৬০ রান করে দ্বিতীয় ইনিংসে। বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে করেছিল ২০৫ রান।

মন্তব্য করুন

আরো সংবাদ