ফটো গ্যালারি

শিল্পোন্নয়নে বিনোদনে লালমনিরহাট জেলা অবহেলিত: সমাজকল্যান মন্ত্রী

শিল্পোন্নয়নে বিনোদনে লালমনিরহাট জেলা অবহেলিত: সমাজকল্যান মন্ত্রী \

মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা (লালমনিরহাট) প্রতিনিধি : সমাজ কল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ বলেছেন, উত্তরের সীমান্তবর্তি জেলা লালমনিরহাট শিল্পোন্নয়নের অনেক পিছিয়ে পড়েছে। জেলার শিল্পোন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি বিত্তবানদের এগিয়ে আসতে হবে। তবেই জেলার কাঙ্খিত উন্নয়ন সাধিত হবে। বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে লালমনিরহাট শিল্প ও বাণিজ্য মেলা উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সমাজ কল্যাণ মন্ত্রী বলেন, পিছিয়ে পড়া এ লালমনিরহাটকে এগিয়ে নিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে অর্থনৈতিক অঞ্চল চাওয়া হয়েছে। সেই দাবি পুরনে এবং জেলাবাসীকে অর্থনৈতিক অঞ্চল উপহার দিতে প্রধানমন্ত্রী সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন। ইতোমধ্যে লালমনিরহাটে এয়ার অ্যাভুয়েশন বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী যতদিন থাকবেন সারা দেশের উন্নয়ন হবে। আগামী দিনেও তিনিই প্রধানমন্ত্রী থাকবেন।সমাজ কল্যান মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ বলেন, বিনোদনের ব্যবস্থা না থাকায় আমাদের শিশিরের মত সন্তানরা মাদকে আসক্ত হচ্ছে। এদের বিপদগামি থেকে ভাল পথে ফেরাতে এ শিল্প ও বাণিজ্য মেলা ব্যাপক অবদান রাখবে। এ মেলায় নতুন কিছু উদ্ভাবন করুন, যা দেখে আমাদের সন্তানরা নতুন কিছু উদ্ভাবনে আপন চেতনাকে জাগ্রত করতে পারে। মাস ব্যাপী এ মেলায় সুস্থ্য বিনোদনের বাহিরে অসামাজিক কার্যকলাপ পরিচালনা না করতে আয়োজকদের প্রতি আহবান জানান মন্ত্রী।

লালমনিরহাট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র সভাপতি সিরাজুল হকের সভাপতিত্ব উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবু জাফর, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মতিয়ার রহমান, পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক পিপিএম সেবা, সাবেক সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট সফুরা বেগম রুমী, লালমনিরহাট পৌরসভার মেয়র রিয়াজুল ইসলাম রিন্টু, আদিতমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্পাদক রফিকুল আলম ও মেলার উৎযাপন কমিটির আহবায়ক মোকছেদুর রহমান প্রমুখ।লালমনিরহাট কালেক্ট্রেট মাঠে জেলা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি আয়োজিত এ শিল্প ও বাণিজ্য মেলা চলবে মাস ব্যাপী। ১০ টাকা প্রবেশ মুল্যে এ মেলায় বিভিন্ন পন্যের স্টলের পাশাপাশি বিনোদনের জন্য রয়েছে দি লায়ন সার্কাস, মোটর সাইকেল খেলা ও শিশুদের নগরদোলাসহ নানান আয়োজন।তবে বিনোদনের প্রতিটি স্টলে পৃথক গেট পাশের ব্যবস্থা রয়েছে।

মন্তব্য করুন

আরো সংবাদ