ফটো গ্যালারি

ইচ্ছা পূরণ করেও কেন অতৃপ্ত আফিফ?

ইচ্ছা পূরণ করেও কেন অতৃপ্ত আফিফ? \

ক্রীড়া প্রতিবেদক: এ যেন চলচ্চিত্রের কোন দৃশ্য মঞ্চায়ন হচ্ছিল। দলের সেরা সব ব্যাটসম্যানরা আউট হয়ে গেলেন। লক্ষ্য তখনও বহুদূর। সে সময় নায়ক শেষ দিকে এসে অসাধারণ এক ইনিংস খেলে দলকে জিতিয়ে দিলেন। এমনটা স্বপ্নে কে না দেখেন? আফিফ হোসেন ধ্রুবও দেখেছেন। আর আর স্বপ্নের বাস্তবায়ন হওয়ায় দারুণ খুশি এ তরুণ। কিন্তু তারপরও কিছু অতৃপ্তি রয়েই গেল তার মনে…

১৪৪ রানের লক্ষ্যে ১০ ওভার পার না হতে টপ অর্ডারের ৬ ব্যাটসম্যান সাজঘরে। সে সময় মাঠে যান আফিফ। ইনিংস তো গড়তে হবে। সঙ্গে সচল রাখতে হবে রানের চাকাও। অন্যথায় শেষ দিকে চাপে পড়ে যেতে পারেন। আর সবগুলো কাজই করেছেন খুব সহজেই। যেন আগে থেকেই সব পরিকল্পনা করা ছিল। ম্যাচ জেতানোই এক ইনিংস খেললেন।

আর এমন ইনিংস খেলার পর স্বাভাবিকভাবেই উচ্ছ্বসিত আফিফ, ‘এই অনুভূতি প্রকাশ করা যায় না। অনেক ভালো লেগেছিল। অনেক দিন পর জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছি। আর এমন একটা ইনিংস খেলতে পেরেছি। দর্শকরাও অনেক খুশি হচ্ছিল। এসবই নিজের কাছে অনেক আনন্দদায়ক লেগেছে… এমন ইনিংস খেলে দলকে জেতানো, সবারই এমন ইচ্ছা থাকে। আমার আজকে ইচ্ছা পূরণ হলো।’

ইচ্ছাপূরণ হওয়ায় খুশি আফিফ। কিন্তু মাঠে কি বাড়তি উচ্ছ্বাস দেখা গিয়েছে? ক্যারিয়ারের প্রথম আন্তর্জাতিক ফিফটি করেও স্বাভাবিক ছিলেন তিনি। কোন উদযাপন নেই। কারণতা নিজেই জানালেন আফিফ, ‘আমার যখন ফিফটি হয়েছে তখন আমি খেয়ালও করিনি। তখন আসলে চিন্তা ছিল ম্যাচটা যেন শেষ করতে পারি। ম্যাচ শেষ করে চিন্তা করেছিলাম একটা উদযাপন করব। কিন্তু ম্যাচটা শেষ করতে পারিনি এর আগেই আউট হয়ে গেছি।’

অথচ এই আফিফের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের শুরুটা ভালো হয়নি। প্রথম বলেই আউট হয়েছেন খালি হাতে। এরপর লম্বা সময় জাতীয় দলের বাইরে। ফের যখন জায়গা পেলেন, নিজের জাত চেনালেন। বোঝালেন লম্বা রেসের ঘোড়াই তিনি, ‘বাদ পড়েছি কিন্তু ভেবেছি যখনই সুযোগ পাব নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব। (এমন ইনিংসে) আত্মবিশ্বাসটা আরও বাড়বে। সামনে সুযোগ পেলে আরও আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে খেলতে পারব।’

দারুণ এক ইনিংস খেলার পরও অতৃপ্তি থেকে গেছে আফিফের। দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেননি। পারলে হয়তো নিজের মনের উচ্ছ্বাসটা প্রকাশ করতে পারতেন। তবে ত্রুটিটাও বুঝতে পেরেছেন। এমন এক দুই রান আগে সেট ব্যাটসম্যানরা আউট হয়ে বহু ম্যাচ ডুবিয়েছে টাইগারদের। বারংবার করেছেন। অন্তত ভুলটা বুঝতে পেরেছেন আফিফ, ‘সন্তুষ্ট কারণ ম্যাচ জিতানো ইনিংস খেলতে পেরেছি। শেষ পর্যন্ত থাকতে পারলে আরও ভালো লাগত নিজের কাছে।’

মন্তব্য করুন

আরো সংবাদ